ভারতে ক্রমবর্ধমান করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণ বেড়ে চলার কারণে ফোন প্রস্তুত কারক সংস্থা রিয়েলমি নয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতিতে এই সংস্থা তাদের আগামী দিনের ফোন লঞ্চ করার বিষয় স্থগিত রাখার কথা জানিয়েছে। রিয়েলমি আগামী ৪ মে তাদের MediaTek Dimensity 1200 SoC দ্বারা চালিত একটি নতুন ফ্ল্যাগশিপ চালু করতে চলেছিল।

সংস্থার আসন্ন স্মার্ট ফোনটি Realme X7 Max হতে পারে বলে অনেকে মনে করেছে, যা বেশ কিছুদিন আগে চীনে প্রকাশিত Realme GT Neo স্মার্ট ফোনটির রিব্র্যান্ড। রিয়েলমি তাদের স্মার্ট ফোনের সঙ্গে একটি স্মার্ট টিভিও লঞ্চ করার কথাও উল্লেখ করেছিল এই দিনে। সম্ভবত সংস্থার তরফে উদ্বোধনী ইভেন্টে প্রকাশ করা হত Realme TV 4K 43-inch মডেলটি।

রিয়েলমি সংস্থার ভারতের সিইও মাধব শেঠ দেশের বর্তমান মহামারীর পরিস্থিতিতে তাদের আসন্ন স্মার্টফোন লঞ্চ এবং বার্ষিকী উদযাপন স্থগিত করার বিষয় টুইট করে উল্লেখ করেছেন। তিনি টুইটে জানিয়েছেন, সাবধানতার কথা বিবেচনা করার পরে, কোম্পানি বার্ষিকী উদযাপনের পাশাপাশি আসন্ন স্মার্টফোন এবং এআইওটি পণ্যগুলির লঞ্চ স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই কঠিন সময়ে সকলে মিলে অনুদান করার মতো বিষয়ের পাশাপাশি মানুষকে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি শীঘ্রই বাজারে ফিরে আসার বিষয় উল্লেখ করেছেন টুইটে।

শেঠ টুইটে একটি ছোটো নোট যুক্ত করে ভারতে সকল মানুষকে কোভিড-১৯ এর পর্যাপ্ত নিয়ম মেনে চলার কথা জানিয়েছেন। তিনি সকলকে অনুরোধ করেছেন এই সময়ে নিজের এবং পরিবারের খেয়াল রাখার বিষয়টি। অন্যদিকে মহামারীর সময়ে সকলে মিলে আশেপাশে থাকা মানুষকে সাহায্য করার পরামর্শ দিয়েছে তার লেখা নোটে।

আগামী ৪ মে রিয়েলমি তাদের স্মার্টফোন লঞ্চ অনুষ্ঠান স্থগিত করলেও, কবে আবার ফের এই অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে তা উল্লেখ করা হয়নি। এই ফোন প্রস্তুত কারক সংস্থা দেশে নতুন করে চালু হওয়া লকডাউন পরিষেবা শেষ হওয়ার পর নতুন তারিখ ঘোষণা করতে পারে। প্রতি বছর মে মাসে রিয়েলমির বার্ষিকী উদযাপনগুলি আয়োজন করে, যা এই বছর পুরোপুরি বাতিল করা হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.