স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ‘জয় শ্রী রাম’স্লোগান না দেওয়ায় ট্রেন থেকে এক মাদ্রাসা শিক্ষককে ধাক্কা মেরে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল৷ জখম ব্যক্তির নাম হাফিজ মহম্মদ শাহরুখ হালদার৷চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পার্ক সার্কাস এলাকায়। জিআরপি-তে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷

জানা গিয়েছে, দক্ষিণ ২৪ পরগণার বাসন্তীর বাসিন্দা হাফিজ মহম্মদ শাহরুখ হালদার ক্যানিং স্টেশন থেকে শিয়ালদহগামী ট্রেনে উঠেছিলেন শাহরুখের অভিযোগ, ট্রেনটি ঢাকুরিয়া থেকে ছেড়ে যাওয়ার পর হঠাৎই ওই দলটির কয়েকজন সদস্য তাঁকে ‘জয় শ্রীরাম’ বলার জন্য চাপ দেওয়া শুরু করে। কিন্তু তিনি রাজি না হলে তাঁকে মারধর করা হয়। পরে পার্ক সার্কাস স্টেশনে ট্রেন ঢোকার পর ধাক্কা দিয়ে তাঁকে প্ল্যাটফর্মে ফেলে দেওয়া হয়৷

এরপর স্থানীয় লোকজন তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে ওই শিক্ষককে৷নিজেকে নিত্যযাত্রী বলে দাবি করে শাহরুখ বলেন, ট্রেনে কামরা ভর্তি লোকের সামনে তাঁকে মারধর করা হলেও কেউ কোনও প্রতিবাদ জানাননি৷ওই মাদ্রাসা শিক্ষকের অভিযোগ, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার তিনি তোপসিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করতে গেলে সেখানে অভিযোগ নেওয়া হয়নি৷ থানা জানিয়ে দেয়, জিআরপির কাছে অভিযোগ জানাতে হবে-এমনই দাবি শাহরুখের৷

সোমবার ঝাড়খণ্ডে ‘জয় শ্রী রাম’ না বলায় এক সংখ্যালঘু যুবককে ব্যাপক মারধর করা হয়। টানা ১৮ ঘণ্টা ওই যুবকের উপর অত্যাচার করা হয়েছিল বলে অভিযোগ৷ শেষে তার মৃত্যু পর্যন্ত ঘটে। এই মর্মান্তিক ঘটনার পর এবার খাস কলকাতায় ‘রামভক্তদের’ তাণ্ডব আরও বিতর্ক বাড়িয়ে দিল। তবে পার্ক সার্কাসের এই ঘটনার পেছনে শুধু ‘জয় শ্রী রাম’নাকি অন্য কোনও কারণ আছে তা খতিয়ে দেখছে তদন্তকারীরা৷