পাটনা: ‘‘বিহারে এনডিএ-কে জিততে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে নির্বাচন কমিশন’, এমনই অভিযোগ লালু-পুত্র তেজস্বী যাদবের। তেজস্বীর কথায়, ‘‘বিহারবাসীর সমর্থন মহাজোটের পক্ষেই ছিল। তবে নির্বাচনের কমিশনের ফল এনডিএ-র পক্ষে।’’ ভোটে হারলেও বিহার রাজনীতিতে নতুন ‘তারা’ হিসেবে উঠে এসেছেন লালুপ্রসাদ যাদবের পুত্র তেজস্বী যাদব। আগামী দিনে শাসক এনডিএ-কে তেজস্বী যে সেয়ানে-সেয়ানে লড়াই দেবেন তা বলাই বাহুল্য।

সদ্যসমাপ্ত বিহার ভোটে বাজিমাত এনডিএ-র। ১২৫টি আসনে জিতে বিহারে ফের ক্ষমতা দখল করেছে এনডিএ। এনডিএ-র মধ্যে বিজেপি পেয়েছে ৭৪টি আসন, জেডিইউ-র দখলে গিয়েছে ৪৩টি আসন। অন্যদিকে মহাজোট জয়ী হয়েছে ১১০টি আসনে। মহাজোটের বড় শরিক আরজেডি পেয়েছে ৭৫টি আসন। অন্য শরিক কংগ্রেস ১৯টি ও বামেরা পেয়েছে ১৬টি আসন।

ভোটে হারলেও বর্তমানে বিহারে সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক দলের তকমা গিয়েছে আরজেডি-র দখলে। তরুণ তেজস্বী একাই নাড়িয়ে দিয়েছেন শাসক শিবিরকে। ভোটের আগে নির্বাচনী প্রচারে চষে বেড়িয়েছেন গোটা বিহার। তবে শেষ হাসি যদিও এনডিএ-র মুখে। এবারের মতো বিহার ফের বিজেপি-জেডিইউ-এর দখলে। ভোটের ফলে স্বভাবতই হতাশ লালু-পুত্র। তবে এব্যাপারে লালু-পুত্রের নিশানায় নির্বাচন কমিশন।

বিহার ভোটে মহাজোটের পক্ষে বহু মানুষের সমর্থন পেয়ে তাঁদের কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তেজস্বী। একইসঙ্গে ভোটে হারার দায় কমিশনের কাঁধে চাপিয়ে তিনি বলেন, ‘‘বিহারের মানুষকে ধন্যবাদ জানাই। বিহারবাসীর সমর্থন মহাজোটের পক্ষে ছিল। তবে নির্বাচন কমিশনের ফলাফল এনডিএ-র পক্ষে ছিল। এটি প্রথমবার হয়নি। ২০১৫ সালে যখন মহাজোট তৈরি হয়েছিল, ভোট আমাদের পক্ষে ছিল। তবে ক্ষমতা দখলের জন্য বিজেপি পিছনের দরজা দিয়ে ঢুকে পড়েছিল।’’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.