নয়াদিল্লি: চায়-ওয়ালা থেকে প্রধানমন্ত্রী। নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরেই এসেছে স্বচ্ছ ভারত ক্যাম্পেন, মেক ইন ইন্ডিয়া, ডিজিটাল ইন্ডিয়া, স্টার্ট আপ ইন্ডিয়া ক্যাম্পেন। কিন্তু শিক্ষাগত যোগ্যতা তুলনামূলকভাবে কম থাকলেও কীভাবে এই উন্নয়নমূলক ভাবনা চিন্ত মোদীর মাথায় আসে তা অনেকেরই প্রশ্ন। আসলে মোদীর এই সমস্ত ক্যাম্পেনের পিছনে যার মাথা মূল দায়িত্ব পালন করে, তাঁর নাম হল অমিতাভ কান্ত। ইনি বর্তমানে মোদীর স্ট্র্যাটেজিস্ট এবং নীতি আয়োগের সিইও। মোদীর দেখা স্বপ্নগুলোকে বাস্তবিক রূপ দেন ইনিই। প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন মানুষের কাছে বিক্রি করার দায়িত্বও অমিতাভ কান্তের উপর।

১৯৮০ সালে কেরালাতে আইএএস অফিসারদের ব্যাচে ছিলেন অমিতাভ কান্ত। মোদী গুজরাটে মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন কেরালার পর্যটন বিভাগে ছিলেন তিনি। সেই সময় কান্তের কাজ দেখে বেশ মুগ্ধই হয়েছিলেন মোদী। তাই ২০১৪তে লোকসভা নির্বাচনে নিজের বিশ্বস্ত আধিকারিকদের দলে তিনি কান্তকে নেন। ২০১৬-র মার্চে DIPP বিভাগের সচিব পদে নিযুক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী।

গত দুবছরে মেক ইন ইন্ডিয়া এবং স্টার্ট আপ ইন্ডিয়া দেশে সবথেকে চর্চিত ক্যাম্পেন ছিল। সাধারণত মোদীর মাথায় যেই না কোনও ধারণা বের হয়, তখনই কান্ত সেই বিষয়টি নিয়ে বিশদে গবেষণা শুরু করে মডেল ও ড্রাফট তৈরি করেন। এত দক্ষতার সঙ্গে কাজ করার ফলে বন্ধুদের মাঝে ‘একে-৪৭’ নামেও পরিচিত অমিতাভ কান্ত।

এই অমিতাভ কান্তই তৈরি করেছেন ভাইব্র্যান্ট ইন্ডিয়া ও ইনক্রেডিবেল ইন্ডিয়ার স্লোগান।