ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পুলিশের ফাঁদে পা দিয়ে গ্রেফতার হল অপহরনকারী৷ অপহরণকান্ডে তাকে বিহার থেকে গ্রেফতার করা হয়৷ উদ্ধার করা হয় তিলজলার অপহৃত ব্যবসায়ী নিরঞ্জন কুমারকে৷

ঘটনার সূত্রপাত গত ৪ মে৷ তিলজলার বাসিন্দা নিরঞ্জন কুমার ওই দিন নিখোঁজ হন৷ পেশায় ব্যবসায়ী নিরঞ্জনের স্ত্রী আফরিন জানান, ঘটনার দিন তার স্বামী স্থানীয় পিকনিক গার্ডেন অঞ্চলে একটি মুদির দোকানে বাজার করতে গিয়েছিলেন৷ দীর্ঘ সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও বাড়ি না ফেরায় তিনি বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিতে শুরু করেন৷ এর মধ্যেই বাড়িতে মুক্তিপণ চেয়ে ফোন আসে। বলা হয় ৪০ লক্ষ টাকা দিলে ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেওয়া হবে৷ এরপরই নিরঞ্জনের পরিবারের সদস্যরা পুলিশের দ্বারস্থ হন৷ তার তাদের সব কথা শোনেন৷

পড়ুন: সাংসদ হলে কোচবিহারের অসমাপ্ত বিমান পরিষেবা চালু করবেন পরেশচন্দ্র অধিকারী

অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ৷ এবং অপহৃত ব্যবসায়ীর পরিবারকে পরামর্শ দেন যে মুক্তিপণ দিতে রাজি হতে৷ শেষ পর্যন্ত অপহরনকারীদেরকে ৬ লক্ষ টাকায় রাজি করানো হয়৷ সেই মত মুক্তিপণ নিয়ে লালবাজার পুলিশের একটি দল বিহার এর ঝাঁজায় পৌঁছে যায়৷

তল্লাশি চালিয়ে ৫দিন পর অপহৃত ব্যবসায়ী নিরঞ্জন কুমারকে উদ্ধার করা হয়৷ আর টাকা নেওয়ার সময় হাতেনাতে একজনকে গ্রেফতার করা হয়৷ ধৃতের নাম রঞ্জিত৷ তবে তার অপর সঙ্গী সুশান্তর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷