স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মুলতুবি থাকলেও বিধানসভায় যাচ্ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় বিধানসভায় পৌঁছবেন রাজ্যপাল। বুধবার টুইট করে নিজেই সেকথা জানিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার নজিরবিহীনভাবে ২ দিনের জন্য অধিবেশন স্থগিত করেছেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দোপাধ্যায়। অধিবেশন মুলতুবি রাখার সিদ্ধান্তের পিছনে রাজভবনের ভূমিকাকে মঙ্গলবার দায়ী করেছেন তিনি। অধ্যক্ষর বক্তব্য, ‘‘রাজ্যপালের ছাড়পত্র-সহ বিল বিধানসভায় না পৌঁছনোয় চলতি অধিবেশনে আলোচনার জন্য তা পেশ করা গেল না। তাই অধিবেশন বন্ধ রাখতে হল।’’

এরপরই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজভবন বিবৃতি দিয়ে পাল্টা রাজ্য সরকারের গাফিলতিতেই দায়ী করা হয়েছে৷ বিবৃতিতে বলা হয়, এসি এবং এসপি কমিশন সংক্রান্ত বিল রাজভবনে পৌঁছায় ২৯ নভেম্বর পরে ৩০ নভেম্বর এবং পয়লা ডিসেম্বর ছুটি থাকার কারণে সরকারি কাজ হয়নি। ২ ডিসেম্বর অর্থাত্‍ সোমবারই রাজভবনের তরফে সংশ্লিষ্ট দফতরের কাছে বিল নিয়ে খুঁটিনাটি জবাব করেছিল রাজ ভবন। কিন্তু সরকারের তরফে কোনও উত্তর আসেনি। সেই কারণেই অন্ধভাবে বিলে অনুমোদন দেওয়া সম্ভব হয়নি। তাই অধ্যক্ষ রাজভবনে বিরুদ্ধে যে দোষারোপ করেছেন তা ভিত্তিহীন।বুধবার সকালে ফের টুইট করলেন রাজ্যপাল। টুইটারেও গাফিলতির জন্য সরাসরি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন তিনি।

বিবৃতিতে তিনি বলেন,”আমি কোনও রবার স্টাম্প বা পোস্ট অফিস নই। যে যা বলবে তা কোন কিছু না বুঝে শুনেই সংবিধান না মেনেই আমি করে দেব।” রাজ্যপাল আরও বলেন, “কোনও বিল সম্পর্কে খুঁটিনাটি খোঁজখবর নেওয়া এবং কোন ধরনের দেরি না করে তাতে অনুমোদন দেওয়া রাজ্যপালের কর্তব্য।”

এরপরই বৃহস্পতিবার বিধানসভায় যাওয়ার বিষয়টি জানিয়েছে রাজ্যপাল৷ তিনি বলেছেন, এদিন লাইব্রেরি দেখতে বিধানসভায় যাবেন৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও