কলকাতা: কৃষকদের চাষের জন্য জল দেবে রাজ্য সরকার৷রবি ও বোরো চাষে কোথায় কী পরিমাণ জল দেওয়া হবে তার আগাম রূপরেখা তৈরি করতে শুক্রবার জরুরী বৈঠক করেন সেচমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বৈঠকে কৃষি ও বিপনন মন্ত্রী তপন দাসগুপ্ত ছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রধান কৃষি উপদেষ্টা প্রদীপ মুখোপাধ্যায়, কৃষি ও বিদ্যুৎ দফতরের অফিসারেরাও ছিলেন৷
সেচমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, নোট বাতিল হওয়ায় এমনিতেই সমস্যায় পড়েছেন কৃষকরা৷ তাই রাজ্যের পক্ষ থেকে জলের যোগান দিয়ে কৃষকদের উদ্বেগ কমানোর চেষ্টা করা হচ্ছে৷ কোন ব্লকে কত জল যাবে তা কৃষকদের আগাম জানাতে একটা রূপরেখা তৈরি করেছি৷এবছর আমরা নদী সেচ ও ক্ষুদ্র সেচের মাধ্যমে একটা যুগান্তকারি চাষের ব্যবস্থা করতে পারব বলে আশা করছি৷ মন্ত্রী বলেন, জলসম্পদ দফতরের এই সিদ্ধান্তে উত্তরবঙ্গ ছাড়াও দক্ষিণবঙ্গের বীরভূম, বাঁকুড়া, বর্ধমান, হাওড়া, হুগলি, পশ্চিম মেদিনীপুর, এই জেলাগুলিতে উপকৃত হবে৷
সেচ মন্ত্রী জানান, এবছর বৃহৎ সেচ থেকে প্রায় ৬ লক্ষ একর জমিতে জল দেওয়া হবে৷তবে বৃহৎ ও ক্ষুদ্র সেচ মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত ১০-১২ লক্ষ একর জমিতে জল দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে৷