প্রদ্যুৎ দাস, জলপাইগুড়ি: ডিএ ছাড়া বেতন। প্রতিবাদে পে স্লিপ হাতে নিয়ে মঙ্গলবার বিক্ষোভ দেখালেন সরকারী কর্মচারীরা। পে স্লিপ থেকে এই প্রথম ডিএ উঠিয়ে দিয়েছে রাজ্য। তার প্রতিবাদে এদিন জলপাইগুড়ি জেলা শাসকের দফতরের সামনে পে স্লিপ হাতে নিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন রাজ্য কো অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যরা।

সূত্রের খবর, এতদিন বেসিক পে এর সঙ্গে হাউস রেন্ট, মেডিক্যাল এবং মহার্ঘভাতা যোগ করে মাস মাইনে পেতেন কর্মীরা। গত মাসেও ১২৫ শতাংশ হারে মহার্ঘভাতা পেয়েছেন কর্মীরা। এই ১২৫ শতাংশ (ডিএ) যা কেন্দ্রীয় সরকারী কর্মচারীদের বেতনের থেকে ১৭ % কম বলে অভিযোগ। পে স্লিপ থেকে বাদ রাখা হয়েছে ডি এর কলামটি।

এর জেরে এদিন দুপুরে বিক্ষোভ দেখায় রাজ্য কো অর্ডিনেশন কমিটির সদস্যরা। একই সঙ্গে এদিন এনআরসি এবং সিএএ’এর বিরুদ্ধে গন স্বাক্ষর এর পাশাপাশি কেন্দ্রীয় বাজেট এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখায় কর্মীরা। এই বিষয়ে সরকারী কর্মী মধু সরকার বলেন, ”এই প্রথম ডিএ ছাড়া মাইনে পেলাম। ডিএ আমাদের অধিকার। সরকার দিতে বাধ্য। তাই আজ আন্দোলনে সামিল হলাম আমরা।”

এই বিষয়ে ফরোয়ার্ড ব্লকের নরেন চট্টোপাধ্যায় বলেন, ”সরকার চালায় সরকারী কর্মীরা। আর ডিএ’র জন্য মামলা করছেন কর্মীরা। এর চেয়ে লজ্জার কিছু নেই। অবিলম্বে সরকারের উচিত ন্যায্য পাওনা মিটিয়ে দেওয়া।”