প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: শ্রমিক-মালিক বিরোধের জেরে উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে বন্ধ হয়ে গেল টিটাগড় এম্পায়ার জুটমিল। কর্মহীন হলেন অন্তত আড়াই হাজার শ্রমিক।

স্থানীয সূত্রে জানা গিয়েছে, অন্যান্য দিনের মতোই মঙ্গলবার সকালেও টিটাগড় এম্পায়ার জুটমিলে সকালের শিফটে কাজে যোগ দিতে গিয়েছিলেন কারখানার শ্রমিকরা। সকালে তাঁরা গিয়ে দেখেন জুটমিলের গেটে মিল বন্ধের নোটিশ ঝুলছে।

ওই নোটিশে কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, জুটমিলে কাজের পরিবেশ নেই। শ্রমিকরা কারখানায় উৎপাদন প্রক্রিয়ায় অংশ না নিয়ে মালিকপক্ষের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেন। ফলে কর্তৃপক্ষের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে। বাধ্য হয়ে কর্তৃপক্ষ কারখানার উৎপাদন বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে মালিক পক্ষের এই দাবি মানতে নারাজ শ্রমিকরা। তাঁদের দাবি, মালিকপক্ষ ইচ্ছাকৃত জুটমিলের উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছে। ঘটনার সূত্রপাত, দিন কয়েক আগে। কারখানায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকে কেন্দ্র করে। সেই ঘটনার জেরে, কারখানার ম্যানেজমেন্ট ৫ জন শ্রমিককে বহিষ্কার করে।

অন্যান্য শ্রমিকরা মালিক পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসে। সেখানে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে, ওই ৫ শ্রমিককে লিখিত ক্ষমা চেয়ে মালিকপক্ষ যেন কাজে ফিরিয়ে নেন। কিন্তু মালিকপক্ষ শ্রমিকদের এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে রাজি হয়নি। এদিকে, এরই মধ্যে কারখানার উৎপাদন প্রক্রিয়া বাড়ানোর জন্য মালিকপক্ষ কারখানায় নতুন মেশিন বসাতে শুরু করে।

পুরনো মেশিন বদলে নতুন মেশিন বসানোর বিষয় নিয়েও ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে শ্রমিকদের বিরোধ শুরু হয়। শ্রমিকরা মালিককে জানিয়ে দেয়, সব শ্রমিকরা নতুন মেশিনে কাজ করতে শেখেনি, তাই উৎপাদন সচল রাখতে কিছু পুরনো মেশিনও রাখা হোক। কিন্তু, কারখানার কর্তৃপক্ষের তরফে পুরনো মেশিন বদলে সব নতুন মেশিন বসানোয় ফের এম্পায়ার জুট মিলে শ্রমিক মালিক বিরোধ শুরু হয়।

সেই বিরোধের জেরে শেষ পর্যন্ত কারখানা কর্তৃপক্ষ জুটমিলের উৎপাদন সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেয়। এই জুটমিল বন্ধ হওয়ায় টিটাগড় এলাকার প্রায় ২৫০০ শ্রমিক কাজ হারালেন। এদিকে কবে জুটমিলের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে তা স্পষ্ট নয় শ্রমিকদের কাছে।

জানা গিয়েছে, শ্রমিক সংগঠনগুলি এই জুটমিলের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে বারাকপুরের লেবার কমিশনারের দ্বারস্থ হবে। তবে কবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে, সেদিকেই তাকিয়ে বন্ধ জুটমিলের শ্রমিকরা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ