স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নাগেরবাজার বিস্ফোরণ কাণ্ডে সকেট বোমা ব্যবহার করা হয়েছিল, সেই বিষয়ে এক প্রকার নিশ্চিত পুলিশ। তবে এই সকেট বোম আর পাঁচটা সাধারণ বোমার মতো নয়। উন্নতমানের এই বোমা যথেষ্টই শক্তিশালী।

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, ওই বোমাটা অনেকটা Unidirectional Landmine এর মতো। মাওবাদীরা জঙ্গলমহলে এই ধরণের বোমা ব্যবহার করেছে অনেকবার।এই ধরণের বোমার মুখ যেদিকে থাকে, স্প্লিন্টার সেই দিকেই আঘাত করে। তবে সাধারণ অপরাধীরা ওই বোম ব্যবহার করে না।

গোয়েন্দাদের আরও মনে হয়, ওই বোম কেউ রাস্তায় রেখে গিয়েছিল। হয়তো উদ্দেশ্য ছিল, পরে ওই জায়গা থেকে বোমাটি সংগ্রহ করা। কিন্তু তার আগেই কোনও কিছুর আঘাতে বোমাটা ফেটে যায়। ওই বোমায় কোনও detonator ছিল না। তা সত্ত্বেও বোমা কি করে ফাটল তা এখন গোয়েন্দাদের প্রশ্ন। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা বিষয়টি ইতিমধ্যেই খতিয়ে দেখছেন।

বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞরা অনেকেই বলছেন, চিনি এবং গ্লিসারিন অনেক সময় detonator হিসেবে কাজ করে৷ এক্ষেত্রে সকেট বোমার ওপরে ওই চিনি এবং গ্লিসারিন ফেলে রাখলে স্ফুলিঙ্গ তৈরি হবে৷ কিন্তু নাগেরবাজারে এমন কিছুই যে ঘটে নি সেব্যাপারে পুলিশের কোনও সন্দেহ নেই৷