স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: নির্বাচন কমিশন নয়, পঞ্চায়েত ভোট পরিচালনা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পরাজয় নিশ্চিত জেনেই উনি ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করছেন৷ বুধবার মালদহ জেলায় দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে এসে এভাবেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র আক্রমণ করলেন মুকুল রায়৷

আরও পড়ুন: মহিলাদের সামনে অন্তর্বাস পরিয়ে পরীক্ষা পুরুষদের, বিতর্কে পুলিশ

তৃণমূল ছাড়ার পর থেকেই তাঁকে বিভিন্ন ভাবে কটাক্ষ করছে শাসকশিবির৷ এবার পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে পাল্টা সরব হলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়৷ এদিন দলীয় সভায় তিনি বলেন, ‘‘সরকারের অস্ত্রাগারে অস্ত্র আছে। ক্যাডারদের পুলিশ সাজিয়ে ভোট করার পরিকল্পনা সরকার নিয়েছে৷ সিভিক ভলান্টিয়ারদের পুলিশের পোশাক পরিয়ে অস্ত্রহাতে ভোট করার পরিকল্পনা করেছিল রাজ্য সরকার৷ পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি করেছে রাজ্য সরকারই৷’’

একই সঙ্গে তিনি জানান, ভোট লুঠ করার চেষ্টা হলে সাধারণ মানুষকে নিয়ে বিজেপি গণ প্রতিরোধ করবে৷ বলেন, ‘‘৭ বছরে বাংলার কোনও উন্নয়ন হয়নি৷ উন্নয়ন হয়েছে তৃণমূলের৷ তাই ওদের জন সমর্থন তলানিতে ঠেকেছে৷ তাই অবাধ ভোটকে ভয় পাচ্ছে মমতার দল৷ সন্ত্রাসের নিরিখে সিপিএমকেও ছাপিয়ে গিয়েছে ওরা৷’’ তাই তারঁ অভিযোগ, নিরাপত্তার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না করেই ভোটে যেতে চাইছে রাজ্য৷

আরও পড়ুন: সোনম-করিনার মিউজিক ভিডিওতে ‘অশ্লীলতা’ দেখানো হয়েছে!

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, পঞ্চায়েত নির্বাচন এই বছর জটিল থেকে জটিলতর হতে বসেছে৷ এবারের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের আকার নিয়েছে পঞ্চায়েত এলাকাগুলি৷ ধিকি ধিকি জ্বলতে থাকা আগুনে মাঝেমাঝেই পড়ছে ঘি-য়ের ছিটে৷ আর তাতেই লেলিহান শিখায় পরিণত হচ্ছে এলাকাগুলি৷ তারই মাঝে ৩৪ শতাংশ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়ে রেকর্ড সৃষ্টি করছে শাসকদল৷ মুকুল রায়ের কথায়, ‘‘এই পরিসংখ্যান থেকেই স্পষ্ট মমতা, গণতন্ত্রকে ভয় পাচ্ছেন৷’’