ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: মালদহে বন্যার দোসর হয়ে দেখা দিয়েছে ভাঙন। গঙ্গা নদীর ভাঙনে ব্যাপক ক্ষতির মুখে মালদহের মানিকচক ও কালিয়াচকের ৩ ব্লক। কালিয়াচক ৩ নম্বর ব্লকের পারলাল পুরের ভাঙন পরিস্থিতি সবচাইতে খারাপ। ওই এলাকায় প্রায় আড়াই কিলোমিটার জুড়ে চলছে গঙ্গা নদীর ভাঙন। ভাঙন ভয়াবহ রূপ নিয়েছে অনুপনগর এলাকাতেও।

পারলাল পুরে প্রাচীন গৌবিন্দ মন্দীর ভাঙনের মুখে। যে কোনও মুহূর্তে গঙ্গা বক্ষে চলে যেতে পারে এলাকার প্রাথমিক বিদ্যালয়। ওই এলাকায় ১৬০ মিটার এলাকায় ভাঙন রোধের কাজ শুরু করেছে সেচ দফতর। অনুপ নগরেও ভাঙন ঠেকাতে ১২০ কিলোমিটার এলাকায় জরুরি ভিত্তিতে চলছে ভাঙন রোধের কাজ। ভাঙন দুর্গতরা আশ্রয় নিয়েছেন অনুপনগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ওই এলাকায় যে তীব্রতায় ভাঙন চলছে তাতে ভাঙন কতটা ঠেকানো যাবে তা নিয়ে সন্দীহান খোদ সেচ কর্তারাই।

গঙ্গা ভাঙন মানিকচক ব্লকেও। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা হিরানন্দপুর পঞ্চায়েতের রাজকুমারটোলা এলাকায়। ভাঙন চলছে কেশবটোলাতেও। ভাঙনের আতঙ্কে রয়েছেন ভূতনীর লক্ষাধিক মানুষও। কারণ ভূতনীতে গঙ্গা রিং বাঁধের দশ মিটার এলাকার মধ্যে চলে এসেছে। ওই বাঁধ টেকানো না গেলে ভূতনীর লক্ষাধিক মানুষ বন্যার মুখে পরবেন। নদীর জল বাড়ায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে শঙ্করটোলা ফেরি ঘাটও। ভাঙন রোধের চেষ্টা চালাচ্ছে সেচ দফতর। গতবছরও এইসব এলাকায় ভাঙনের মুখে ভিটেমাটি হারিয়েছিলেন প্রচুর মানুষ। এবারও ভাঙনের মুখে পড়ায় অনেকেই কার্যত বিপর্যস্ত।