স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: করোনার বিরুদ্ধে লড়তে গোটা দেশেই ‘লকডাউন’ ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যসভার ভোট স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন।

কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দিয়েছে, জনস্বাস্থ্যে যে গুরুতর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে তাতে নির্বাচন স্থগিত রাখা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।

কমিশনের তরফে বলা হয়েছে, ৩১ মার্চ পর্যন্ত ভোট স্থগিত। পরবর্তী পরিস্থিতি দেখে তারপর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। নির্বাচন কমিশনের বক্তব্য, করোনা ঠেকাতে যে কোনও ধরনের জমায়েতের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ভোট হওয়া মানে বিপদ ডেকে আনা।

৫৫টি রাজ্যসভার আসন ফাঁকা হয়েছে। ইতিমধ্যেই ৩৭ জন বিনা লড়াইয়ে জিতে গিয়েছেন। ভোট হওয়ার কথা ছিল ১৮টি আসনে। এরমধ্যে রয়েছে গুজরাত, কর্ণাটকের মতো করোনা কবলিত রাজ্য।

মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে গোটা দেশে সম্পূর্ণ লকডাউনের ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর বার্তা, ভারতকে বাঁচাতে ২১ দিন, তিন সপ্তাহ ঘরের মধ্যেই থাকুন। এখন যে যেখানে আছেন, সেখানেই থাকুন।

জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে নরেন্দ্র মোদী বলেন, ”ভারত এমন ধাপে রয়েছে, যেখানে আমাদের পদক্ষেপ ঠিক করে দেবে, কতটা ক্ষতি এড়াতে পারি আমরা। প্রতিটি পদে ধৈর্য ধরতে হবে। লকডাউনে ঘর থেকে না বেরানোর সংকল্প নিন। প্রাণ থাকলে দুনিয়া থাকবে।”

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প