স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: শুক্রবার উত্তর ২৪ পরগনার আমডাঙ্গার সাধনপুর হাইস্কুলে মক পোল চলার সময় পদ্মফুল চিহ্ন ঘিরে বিতর্ক সৃষ্টি হয়৷ বিতর্কে জড়ায় বিজেপি৷ লোকসভা ভোটের প্রস্তুতির জন্য সেখানে আয়োজন করা হয়েছিল মক পোলের৷ সেই সময় তৃণমূলের কর্মীরা দেখতে পান ইভিএমে বিজেপির প্রতীকের নিচে লেখা রয়েছে বিজেপি৷

এরপরই তারা প্রতিবাদ করেন৷ কী উদ্দেশ্য বিজেপি লেখা তা তারা জানতে চান৷ বিষয়টি নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ করেন খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগণার তৃণমূল জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷ তার অভিযোগ, ইভিএমে বিজেপির প্রতীকের নিচে বিজেপি লেখা অর্থাৎ জেতার জন্য বিজেপির এইসব খেলা চলছে৷

কিন্তু তৃণমূলের সেই অভিযোগ শনিবার খারিজ করে দেয় নির্বাচন কমিশন৷ কমিশনের দাবি, পদ্মফুল প্রতীকের নীচে বিজেপির নাম লেখা নেই। প্রতীকের নীচে জলের ছবি রয়েছে। কোনও দলের নাম নয়৷ তাই কোনও বিতর্ক হওয়ার কথা নয়৷ ইভিএম-এ বিজেপির প্রতীক নিয়ে বিতর্কে এভাবেই জল ঢালল কমিশন। খারিজ করে দিল তৃণমূলের অভিযোগ।

কমিশন আরও দাবি, ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনেও এই একই প্রতীক ব্যবহার করেছিল বিজেপি৷ আর এটা কমিশন স্বীকৃত প্রতীক৷ শুধু তা নয়, এদিন সিইও দফতরেও চিঠি দিয়ে কমিশন জানায়, পদ্মফুলের নীচে কোনও দেলর নাম লেখা নেই৷ ওটা জলের-ই ছবি।

তবে শুধু ইভিএম বিতর্কই নয়, এরআগেও বিজেপির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে৷ নির্বাচন কমিশনের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও শিশুদের নির্বাচনী প্রচারে সামিল করার অভিযোগ উঠে বিজেপি-র বিরুদ্ধে। বিরোধীদের দাবি, ‘ম্যায় ভি চৌকিদার’ লেখা প্ল্যাকার্ড-সহ একদল শিশুর ভিডিও ইউটিউব এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে প্রচার করছে বিজেপি৷ ওই বিষয়টি নিয়েও রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাবের কাছে অভিযোগ করেছে পশ্চিমবঙ্গ শিশু অধিকার সুরক্ষা কমিশন।