স্টাফ রিপোর্টার, পূর্ব বর্ধমান: ভোটের আগে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষ থানার ওঁয়াড়ি গ্রাম। শনিবার গ্রামের একপ্রান্ত থেকে উদ্ধার হল প্রচুর তাজা বোমা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আতঙ্ক ও উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

রবিবার বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর লোকসভার অধীন খণ্ডঘোষেও নির্বাচন। তারই প্রাক্কালে বোমা উদ্ধারকে ঘিরে ভোটের আতঙ্ক আরও বাড়ল। উল্লেখ্য, সম্প্রতি খণ্ডঘোষের আলিপুরে খুন হয়েছেন কামরুল সেখ। অভিযোগ শাসক দলের দিকে৷ সেই ঘটনায় গোটা এলাকায় এখনও উত্তেজনা রয়েছে। এরপর বোমা উদ্ধারের ঘটনায় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপান উতোর।

আরও পড়ুন: লালদুর্গ অতীত, সবুজ মেদিনীপুরে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই মানস-দিলীপের

খণ্ডঘোষ ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি পার্থিব ইসলাম জানিয়েছেন, নির্বাচনের আগে খণ্ডঘোষে অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছে সিপিএম, বিজেপি এবং কংগ্রেস। তিনি জানিয়েছেন, তৃণমূল কংগ্রেস তথা মমতা বন্দোপাধ্যায়ের উন্নয়নকে কোনেওভাবেই দমাতে না পেরে ভোটের আগে বোমাগুলি মজুদ করছে বিরোধীরা। তারা রাজনৈতিক লড়াইয়ে হেরে গিয়ে এখন সন্ত্রাসের পথ নিয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, এব্যাপারে পুলিশকে কড়া ব্যবস্থা নেবার আবেদন জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: রবিতে আঁটোসাঁটো নিরাপত্তায় ভোটের আয়োজন কমিশনের

অন্যদিকে, সিপিএমের কৃষকসভার জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বিনোদ ঘোষ এদিন জানিয়েছেন, গোটা খণ্ডঘোষ ব্লকেই তৃণমূল কংগ্রেস তার জনসমর্থন হারিয়েছে। আর তাই সন্ত্রাস সৃষ্টি করে ভোটের আগে ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাইছে। তিনি দাবী করেছেন, টোটোয় করে তৃণমূলের নেতারা ওই বোমা খণ্ডঘোষের বিভিন্ন জায়গায় মজুদ করেছে। এব্যাপারে তথ্য প্রমাণ তাঁরা পুলিশের কাছে জমা দিয়েছেন।

বিনোদবাবু জানিয়েছেন, খণ্ডঘোষ বিধানসভার মানুষ তৃণমূলের কাজকর্মে বীতশ্রদ্ধ। এদিকে, ভোটের আগের মুহূর্তে যখন বোমা-বারুদে রীতিমত উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে খণ্ডঘোষ, সেই সময় ভোটের কাজ করতে এদিন দুপুর থেকেই বুথে বুথে রওনা দিলেন ভোটকর্মীরা।