নয়াদিল্লি: রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার নিয়মানুসারে, অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালান্স না রাখা হলে যেন গড় পরিষেবা খরচের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে তা চার্জ করা হয়ে থাকে৷ কিন্তু বাস্তবে তেমনটা হচ্ছে না৷ কারণ বহু ব্যাংক এই কারণে জরিমানা করে বিপুল অংকের মুনাফা লুটছে৷

অর্থমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুসারে দেশের সবচেয়ে বড় ব্যাংক স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া ২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে নভেম্বরের মধ্যে অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালান্স না রাখার জন্যে ১৭৭১ কোটি টাকা গ্রাহকদের কাছে চার্জ করেছে ৷ যেখানে ব্যাংকের জুলাই-সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে নিট মুনাফার পরিমাণ ১৫৮১.৫৫ কোটি টাকা এবং এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বরের নিট মুনাফার পরিমাণ ৩৫৮৬ কোটি টাকা৷

পাঁচ বছর বাদে চলতি অর্থবর্ষ থেকে আবার এই চার্জ চালু করেছে ব্যাংকগুলি৷ এই ভাবে জরিমানা বাবদ এপ্রিল থেকে নভেম্বর মাসে পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক৯৭.৩৪ কোটি টাকা সেন্ট্রাল ব্যাংক ৬৮.৬৭ কোটি টাকা এবং কানাড়া ব্যাংক ৬২.১৬ কোটি টাকা আয় করেছে৷

সম্প্রতি আইআইটি মুম্বইয়ের সংখ্যাতত্ত্বের অধ্যাপক আশিস দাস সমীক্ষা করে দেখেছেন এমন কাজ করছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের পাশাপাশি বেসরকারি ব্যাংকগুলিও৷ যদিও বেসিক সেভিংস ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং প্রধানমন্ত্রী জনধনযোজনা অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালান্স রাখার বাধ্যবাধকতা নেই৷