হায়দরাবাদ: মোদী সরকারে শেষ পাঁচবছরের শাসনে সংবিধানের ধারা নং ৩৫এ এবং ৩৭০ খবরের শিরোনামে এসেছে বারেবারে৷ কাশ্মীরের জন্য বিশেষ ক্ষমতা দেওয়া এই ধারা দুটি সংশোধন করে সারা দেশে এক আইন চালু করার কথা বারেবারে বলে এসেছে আরএসএস থেকে বিজেপির একাধিক শীর্ষ নেতা৷ ৩৫এ সরিয়ে দেওয়ার বিষয়টি নিয়ে জন্মু কাশ্মীরের রাজনৈতিক দল ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর আবদুল্লা সম্প্রতি একটি বিচ্ছিন্নতাবাদী মন্তব্য করেছেন৷

আরও পড়ুন- কাশ্মীরের বানিহালে গাড়ি বিস্ফোরণে জড়িত হিজবুল জঙ্গী গ্রেফতার

আবদুল্লা সম্প্রতি বলেন, ‘‘যারা ৩৫এ ধারা সরিয়ে দেওয়ার কথা বলছে তাদের জানা উচিৎ এরকম কিছু হলে কাশ্মীর আবার তার প্রধানমন্ত্রী পদ অর্জন করে নেবে৷’’ ওমর আবদুল্লা ন্যাশনাল কনফারেন্স দলের সুপ্রিমো৷ সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে এই দলের সঙ্গেই জোট করে জন্মু ও কাশ্মীরে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে কংগ্রেস৷ আবদুল্লার এই ধরণের বক্তব্য নিয়ে কোনও কথা বলে কংগ্রেস৷

আরও পড়ুন- বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার গাফিলতিতে রোগীর মৃত্যু

বিষয়টি নিয়ে হায়দরাবাদে নির্বাচনী প্রচারমঞ্চ থেকে কংগ্রেস-কে খোঁচা মেরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘‘ সে (ওমর আবদুল্লা) বলছেন সে ঘড়ির কাঁটাকে উল্টো দিকে দৌড়াবেন এবং ১৯৫৩ সালের আগের অবস্থা তৈরি করবেন৷ এবং সেখানে দু’জন প্রধানমন্ত্রী থাকবেন৷ কাশ্মীরের জন্য আলাদা প্রধানমন্ত্রী৷ কংগ্রেস-কে এর জবাব দিতে হবে যে তার রাজনৈতিক সহযোগী দল কী ভাবে এরকম মন্তব্য করতে পারে৷’’

যদিও মোদীর এই বক্তব্যের পর ওমর আবদুল্লা আবারও বলেন, ‘‘কংগ্রেস থাকা বন্ধুরা এবং অন্য দলকে বলব আপনার স্পষ্টভাষাতেই আমার ওই বক্তব্যের সঙ্গে দূরত্ব রাখুন৷ এবং সেটা সোজাসুজি ঘোষণা করে দিন৷ এভাবেই মোদীর মিথ্যেগুলো সামনে আনুন৷’’