ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রেশন বন্টনের জন্য গত ৭ মাস ধরে কোনও কমিশন না মেলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিলেন রেশন ডিলাররা। কমিশন না পাওয়ার জন্য একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংককে দায়ী করেছেন তাঁরা।

লকডাউনের সময় এপ্রিল মাস থেকে বিনামূল্যে রেশন বিলির কথা ঘোষণা করেছিল কেন্দ্র ও রাজ্য দুই সরকারই। সেই মতো রাজ্যের রেশন দোকান গুলিতে বিনামূল্যেই রেশন দেওয়ার কাজ শুরু হয় যা এখনও চলছে। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মতো আগামী বছরের জুন মাস পর্যন্ত তা চলবে। কিন্তু রেশন ডিলারদের কমিশন হিসাবে আইনত ৮৭ টাকা করে প্রতি কুইন্ট্যালে পাওয়া উচিত। যদিও এই রাজ্যে তা মিলছে মাত্র ৭০ টাকা। এপ্রিল মাস থেকে সেই টাকাটাও আর পাচ্ছেন না তাঁরা। সেই অভিযোগ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে তাঁরা চিঠি পাঠালেন।

খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কাছেও নালিশ জানিয়েছে ডিলারদের সংগঠন অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস শপ ডিলারস ফেডারেশন। তাদের বক্তব্য, খাদ্য দফতর তাদের কমিশন বাবদ নির্দিষ্ট টাকা ব্যাংকে যথা সময়েই জমা করে দিয়েছে। সেই টাকা ব্যাংক তুলেও নিয়েছে। কিন্তু তার একাংশও তারা ডিলারদের দেয়নি বলে অভিযোগ।

এই মুহূর্তে রাজ্যে রেশন ডিলারের সংখ্যা ২০ হাজার ৭৮০। ডিলারদের সংগঠনের দাবি, তাদের মধ্যে মাত্র ২৫ শতাংশ এই কমিশনের টাকা পেয়েছে।সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসুর কথায়, “আমরা দফতরের থেকেই খবর পেয়েছি যে, আমাদের কমিশনের টাকা ঠিক সময়ে ব্যাংকে জমা হয়েছে। কিন্তু ব্যাংক সেই টাকা দিতে চাইছে না।” তাঁর আরও অভিযোগ, “এই টাকা ব্যাংক বাজারে সুদে খাটাচ্ছে।”

ইতিমধ্যেই এই সংগঠনের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সমস্যার সমধান না হলে তাঁরা আগামী ডিসেম্বর মাস থেকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য ধর্মঘটে যাবেন।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।