ইউরোপ এবং ব্রিটেনে আজ রবিবার মধ্যরাত থেকে ঘড়ির কাঁটা এক ঘণ্টা এগিয়ে গেল। ৩১ মার্চ রাতে যখন একটা বাজে তখন তা এক ঘণ্টা এগিয়ে রাত দুটো করা হল। ইউরোপজুড়ে দিনের আলো সংরক্ষণ ও কাজে লাগানোর জন্য ঘড়ির কাটা এগিয়ে দেওয়া হয়। ইউরোপে ঘড়ির কাঁটা পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত দুই বার হয়। আগামী ২৭ অক্টোবর তা আবার একঘণ্টা পি‌ছি‌য়ে দেওয়া হবে। দ্য গার্ডিয়ানে প্রকাশিত খবরে এমনটাই জানানো হয়েছে।

ব্রিটেনে আনুষ্ঠানিকভাবে ৩১ মার্চ গ্রীষ্মকালীন সময় শুরু হচ্ছে। এই সময় ব্রিটিশ সামার টাইম বা বিএসটি নামে পরিচিত। ১৯১৬ সালে গৃহীত সামার টাইম অ্যাক্ট অনুসারে ১০০ বছরের বেশি সময় ধরে ঘড়ির কাঁটা পরিবর্তন করা হয় এই দেশে।

২০০১ সাল থেকেই ইইউভুক্ত দেশগুলোর জন্য ঘড়ির কাঁটা এগিয়ে আনা বাধ্যতামূলক। এই উদ্যোগ দিনের আলো সংরক্ষণ সময় বা ডিএসটি পরিকল্পনা নামে পরিচিত। ব্রেক্সিটের কারণে ভবিষ্যতে ব্রিটেনের এই ঘড়ির কাঁটায় পরিবর্তন আসবে কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয়। ইউরোপের অনেক দেশই ডিএসটি পরিকল্পনার বিরোধিতা করছে। সম্প্রতি ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রেসিডেন্ট জিন-ক্লড জাঙ্কার এই পরিকল্পনা পরিবর্তনের ডাক দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, ঘড়ির কাঁটা পরিবর্তন বন্ধ হওয়া দরকার। সদস্য রাষ্ট্রগুলোই নির্ধারণ করুক তাদের মানুষ শীতকালীন বা গ্রীষ্মকালীন সময় কোনটা বেছে নেবে। ইইউ পরিচালিত জনমত সমীক্ষা অনুসারে, ৮২ শতাংশ ব্রিটিশ জনগণ বিএসটি বিলোপের পক্ষে। তবে এই পরিবর্তনের বিষয়ে কোনও রাজনৈতিক দলের উল্লেখযোগ্য অবস্থান নেই।