সুভাষ বৈদ্য, কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের প্রথম দফা ভোটে সি-ভিজিল অ্যাপে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ জমা পড়ল৷ নির্বাচন কমিশনের অন্য দু’টি অভিযোগ জানানোর পোর্টালের তুলনায় যা প্রায় দ্বিগুন৷ এছাড়া রাজ্যের দু’টি কেন্দ্রে নির্বাচন শেষে ভোটের পরিসংখ্যান জানাল কমিশন৷

রাজ্যের প্রথম দফার ভোটে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ জমা পড়েছে সি-ভিজিল অ্যাপে৷ ভোটারদের কাছে সরাসরি অভিযোগ শুনতে সি ভিজিল অ্যাপ চালু করেছে নির্বাচন কমিশন৷ এই মোবাইল অ্যাপটি ১৭তম লোকসভা নির্বাচনেই প্রথম চালু করে কমিশন৷ নিয়ম অনুযায়ী অভিযোগ আসার ১০০ মিনিটের মধ্যে তা নিষ্পত্তি করবে কমিশন৷ লোকসভা ভোটের আগে থেকেই ওই অ্যাপে নজরদারি ও সমস্যার সমাধান করা হয়৷ বিশেষ করে ভোটের দিন ২৪ ঘন্টাই অ্যাপে নজর রেখেছিল রিটার্নিং অফিসার বা অ্যাসিস্ট্যান্ট রিটার্নিং অফিসাররা৷

রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক দফতর সূত্রে খবর, রাজ্যের প্রথম দফার ভোটে মোবাইল অ্যাপ এ অর্থাৎ সি-ভিজিল অ্যাপ এ মোট ৪৮৪৯ টি অভিযোগ জমা পড়েছে৷ যার মধ্যে মাত্র ২৪টি অভিযোগ নিস্পত্তি বাকি রয়েছে৷ আর সব অভিযোগ ভোট চলাকালীনই সমাধান করা হয়েছে৷ এছাড়া নির্বাচন কমিশনকে অভিযোগ জানানোর জন্য আরও দু’টি পোর্টাল রয়েছে৷ তারমধ্যে NGS(ECI) তে অভিযোগ জমা পড়েছে ১৯০২টি৷ নিস্পত্তি বাকি ৬৬টি৷ আর NGS(citizens) তে অভিযোগ জমা পড়েছে ২৯২০টি৷ নিস্পত্তির বাকি ৫২টি৷ যে সব অভিযোগ এখনও নিস্পত্তি হয়নি সেগুলো নিস্পত্তির চেষ্টা করছে কমিশন৷

ভোট শেষে শুক্রবার মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক দফতর এর দেওয়া একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে রাজ্যের দু’টি আসনে ভোট চিত্র দেখুন একনজরে

কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্র

মোট ভোট পড়েছে – ১৫১৮৭৭৯
পুরুষ ভোটার – ৭৭৭৮০৬
মহিলা ভোটার – ৭৪০৯৭২
তৃতীয় লিঙ্গ ভোটার – ০১

আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্র

মোট ভোট পড়েছে – ১৩৭৫৮১৪
পুরুষ ভোটার – ৬৮৯২৯৮
মহিলা ভোটার – ৬৮৬৫১৫
তৃতীয় লিঙ্গ ভোটার – ০১

যদিও শুক্রবার দুপুরে বিজেপি নেতা কর্মীরা মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাবের দফতরে যান৷ তাঁর অফিস রুমে ঢোকে তারা বিক্ষোভ দেখান৷ এবং মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক ও সহ আধিকারিকের অপসারন দাবি করেন৷ তাছাড়া ২৯৭ টি বুথে পুনর্নির্বাচন দাবি জানায় বিজেপি৷