স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: জেলা তৃণমূল সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তীর গাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। ঘটনার তদন্তে পুলিশ সুপার অমিতাভ মাইতি।

ময়নাগুড়িতে একাধিক তৃণমূল পার্টি অফিস বিজেপি দখল করার পর রবিবার বিকেলে ময়নাগুড়ির আসেন জেলা সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী। এরপর তিনি ময়নাগুড়ি নতুন বাজারের বিজেপির দখলে থাকা পার্টি অফিস উদ্ধার করেন। থানায় পুলিশ সুপারের সঙ্গে কথাও বলতে যান।

এরপর জলপাইগুড়িতে ফেরার সময় বিজেপির বিজয় মিছিলের সামনে পড়েন তিনি৷সেই সময়েই তাঁর গাড়ি লক্ষ করে ঢিল ছোড়া হয় এবং তাতেই গাড়ির পেছন দিকের কাঁচ ভেঙে যায় বলে অভিযোগ৷

সৌরভ চক্রবর্তী বলেন, ”বিজেপির নেতারা আমার গাড়িতে আক্রমণ করে। আমার গাড়ির কাঁচ ভেঙে দিয়ে চলে যায়। আমি টেকাটুলি যাচ্ছিলাম সে সময় ময়নাগুড়িতে আমার ওপর আক্রমণ করা হয়।” অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপির জেলা সম্পাদক বাপী গোস্বামী৷ তিনি বলেন, ”তৃণমূলের এখন কোনও অস্তিত্ব নেই৷ ওরা নিজেরাই এই ঘটনা ঘটিয়ে এখন আমাদের উপর দোষ চাপাচ্ছে।”

পুলিশ সুপার অমিতাভ মাইতির কথায়, ”সৌরভ চক্রবর্তীর গাড়িতে আক্রমণ করা হয়েছে। আমরা দোষীদের চিহ্নিতকরণ করার চেষ্টা করছি। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

উল্লেখ্য, ২৪ ঘন্টা আগে অর্থাৎ শনিবার ভোট পরবর্তী রিভিউ কমিটির বৈঠকে শিলিগুড়ি-জলপাইগুড়ি ডেভেলপমেন্ট অথরিটির (এসজেডিএ) চেয়ারম্যান পদ থেকে বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী সরিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর জায়গায় বসানো হয়েছে বিজয় চন্দ্র বর্মণকে।