স্টাফ রিপোর্টার, কোলাঘাট: সম্প্রতি কয়েকদিন আগে কোলাঘাটের প্রাক্তন বিধায়ক তথা বর্তমান ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান বিপ্লব রায়চৌধুরী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি কলকাতার একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে চিকিৎসাধিন রয়েছেন।

আর এবার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কোলাঘাটের বিডিও। এমনটাই জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রশাসনের তৎপরতায় ব্লক প্রশাসনিক ভবন স্যানিটাইজার করার প্রক্রিয়া শুরু করে ফেলেছে।

পাশাপাশি এই মহামারী ভাইরাস থেকে এলাকার মানুষকে সচেতন রাখার লক্ষ্যে নেয়া হচ্ছে একাধিক পদক্ষেপ। এ বিষয় নিয়ে কোলাঘাটের বিডিও মদন মন্ডলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে উনি জানান নিজেকে এই ভাইরাস থেকে সুরক্ষিত রাখার লক্ষ্যে সোমবার নিজেই স্ব-ইচ্ছায় র্যাপিড টেস্ট করান।

এরপরই তাঁর রিপোর্টে করোনা পজিটিভ আসে। স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশ অনুসারে এই মুহূর্তে হোম আইসোলেশনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁকে। পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, “প্রশাসনিক সমস্ত কাজেই চলবে ও গোটা এলাকা স্যানিটাইজার করা হবে। সাধারণ মানুষকে এই বিষয় নিয়ে আরও সচেতন থাকতে হবে।”

অন্যদিকে রয়েছে স্বস্তির খবরও। বাংলায় একদিনে আক্রান্তের তুলনায় সুস্থ হয়েছেন বেশি মানুষ৷ ফলে কমেছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা৷ বেড়েছে সুস্থ হয়ে ওঠার হার৷ মঙ্গলবার রাজ্য স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী,গত ২৪ ঘন্টায় ৩,২৫১ জন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন৷

সোমবার ছিল ৩,২৮৫ জন৷ রবিবার ছিল ৩,০৪৮ জন৷ তবে এই পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লক্ষ ১৪ হাজার ৫৪৩ জন৷ সোমবার ছিল ১ লক্ষ ১১ হাজার ২৯২ জন৷ সুস্থ হয়ে ওঠার হার বেড়ে হল ৭৯.১০ শতাংশ৷ সোমবার ছিল ৭৮.৪৬ শতাংশ৷ অর্থাৎ প্রতিদিনই বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার হার৷

অপরদিকে একদিনে আক্রান্ত ২,৯৬৪ জন৷ যা সুস্থ হয়ে উঠার থেকে কম৷ সোমবার আক্রান্ত ছিল ২,৯৬৭ জন৷ রবিবার ছিল ৩,২৭৪ জন৷ তবে মোট আক্রান্ত ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ৮০১ জন৷ গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ৫৮ জনের৷ সোমবার ছিল ৫৭ জন৷ রবিবারও মৃতের সংখ্যা ৫৭ জনেই ছিল৷ শনিবার ছিল ৪৮ জনে৷

ফলে এই পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ২,৯০৯ জন৷ একদিনে কমেছে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাও৷ গত ২৪ ঘন্টায় ৩৪৫ জন কমে এই মুহূর্তে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা ২৭ হাজার ৩৪৯ জন৷ সোমবার ছিল ২৭ হাজার ৬৯৪ জনে৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।