05সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় : সুকুমার রায় লিখেছিলেন, ‘গোঁফের আমি , গোঁফের তুমি, গোঁফ দিয়ে যায় চেনা’। আমেরিকার প্রেসিডেন্টের নির্বাচন জয়ের ক্ষেত্রে গোঁফ নয় কাজ করেছিল ‘দাড়ি ফ্যাক্টর’। বলা যেতে পারে সেই দাড়িওয়ালা লুকই তাঁকে প্রেসিডেন্টের আসনে বসিয়ে দেয়। তিনি আব্রাহাম লিঙ্কন, যার দাড়ির স্টাইল একসময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে স্টাইল স্টেটমেন্ট হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

এই দাড়ির পিছনে রয়েছে একটি চিঠি এবং তার আবদার। ঘটনা ১৮৬০ সালের। আমেরিকার ১৬তম প্রেসিদেন্ত নির্বাচনের আর কয়েক সপ্তাহ বাকি। ১৫ অক্টোবর প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী আব্রাহাম লিঙ্কনের কাছে এক চিঠি এসে পৌঁছাল। ভাবি প্রেসিডেন্ট চিঠি পড়ে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন। এ কেমন চিঠি! চিঠির আবদারও অদ্ভুত!

সেই চিঠির আবদারের সঙ্গেই জড়িয়ে তাঁর প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য কাঙ্খিত কিছু ভোট। চিঠির প্রেরক ওয়েস্টফিল্ডের বাসিন্দা ১১ বছরের এক ছোট্ট মেয়ে। নাম গ্রেস বেডেল। আবদার কি ? লিঙ্কনকে দাড়ি রাখতে হবে। তাহলে তাঁকে সরু গালটা ভরাট লাগবে। তাঁকে দেখতে আরও সুন্দর লাগবে।

ঘটনাচক্রে আব্রাহাম লিঙ্কন এই চিঠির আগে একদমই গোঁফ দাড়ি রাখা পছন্দ করতেন না। ক্লিন শেভ, ঝকঝকে লুকেই থাকতে পছন্দ করতেন। চিঠির পরিবর্তী কথাই যেন বদলে দিয়েছিল তাঁর ভাগ্য। গ্রেস বেডেলের চিঠিতে লিখেছিলেন, ‘আপনি জানেন কি না জানি না আমেরিকার বেশিরভাগ মহিলাই গোঁফওয়ালা পুরুষদের পছন্দ করে। আপনি যদি এমন কিছু একটা করেন তাহলে মহিলারা তাঁদের বরদের আপনার হয়ে ভোট দিতে বলবে।

সেই ভোটে কিন্তু আপনি নির্বাচনে জিতে যেতে পারেন। আমার বাবাও আপনাকেই ভোট দেবে,আমি তো দেবোই কিন্তু আমার মনে হচ্ছে আপনার একটাই খামতি রয়েছে। সেটা হল আপনার মুখটা কেমন ফাঁকা ফাঁকা। সরু মুখে যদি গালের ধার দিয়ে যদি একটা দাড়ির ‘স্পেশ্যাল কাট’ দেওয়া যায় তাহলে আপনার মুখটা ভরাট লাগবে। আর আপনার লুকটাও চেঞ্জ হয়ে যাবে। ভোট ব্যঙ্কটাও ভরতে পারে। এবার আপনি ভেবে দেখতে পারেন’

ছোট্ট মেয়ের চিঠির উত্তর দিয়ে আব্রাহাম লিঙ্কন লিখেছিলেন, ‘দেখো আমার মনে হয় আমি যদি সবার দেখাদেখি হঠাৎ একটা গোঁফ বা এমন কিছু রেখে বসি তাহলে এটা বোকা বোকা হয়ে যাবে নাকি?’ অর্থাৎ গোঁফ বা দাড়ি রাখার প্রতিশ্রুতি দেন নি তিনি। কিন্তু শোনা যায় তাঁর রোগা সরু মুখের জন্য রাজনৈতিক মহলে অনেকে সেটা নিয়ে মজা করত। কিছু দিন পর থেকেই দাড়ি রাখতে শুরু করেন লিঙ্কন। একদম গ্রেস বেডেলের আবদার অনুযায়ী গালের ধার বরাবর। বাকিটা ইতিহাস। নির্বাচনে জিতে আমেরিকার ১৬তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন আব্রাহাম লিঙ্কন।

নির্বাচন জয়ের পর তিনি ট্রেনে চড়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন ওয়েস্টফিল্ডে। দেখা করেছিলেন ছোট্ট গ্রেসের সঙ্গে। বলেছিলেন, “দেখ ঠিক আছে তো? আমি কিন্তু তোমার চাহিদা মতো দাড়ি রেখেছি”। লিঙ্কনের দেখাদেখি সেই দাড়ি আমেরিকায় পুরুষদের একধরনের স্টাইল স্টেটমেন্ট হয়ে গিয়েছিল।

ঘটনাচক্রে আব্রাহাম লিঙ্কনের আগে যে ১৫ জন ব্যক্তিত্ব আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ছিলেন তাঁরা কেউই দাড়ি বা গোঁফ রাখতেন না। আব্রাহাম লিঙ্কন যেন ট্রেন্ড সেটার হয়ে গিয়েছিলেন। তারপরে বেশ কয়েকজন মার্কিন প্রেসিডেন্ট গাল ছিল গোঁফ দাড়িতে ভরতি।