ব্যাংকক: মেশিন গান থেকে ছুটল একের পর এক গুলি। আর তাতেই মৃত্যু সাধারণ নিরপরাধ মানুষের। আহতও হয়েছেন অনেকে। এক সেনা জওয়ান এই কাজ করেছেন। সেই ভিডিও পোস্টও করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

থাইল্যান্ডের কোরাট শহরের ঘটনা। এলোপাথাড়ি গুলিতে এখনও পর্যন্ত ২০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।

শনিবার সন্ধে ৭টা ২০ মিনিটে এই ঘটনা ঘটে। প্রথমে ওই সেনা ক্যাম্পে তার কমান্ডারের দিকে তাক করে গুলি করেন। পরে আরও দুই সহকর্মীর উপর গুলি চালান তিনি। পরে তিনি মুনাং জেলার একটি শপিং মলে প্রবেশ করে তাণ্ডব চালান।

নিজের মোবাইলে সেলফি মোড অন করে ফেসবুক লাইভ করেন তিনি। তবে এই লাইভের কিছুক্ষণ পরই তার মোবাইলে ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক বন্ধ হয়ে যায়। এখন পর্যন্ত কতজন আহত হয়েছেন তার হিসেব পাওয়া যায়নি।

এএফপি সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই বন্দুকধারী একটি মেশিনগান ব্যবহার করে নির্দোষ ব্যক্তিদের গুলি করেন। ওই এলাকাটি এখন পুলিশ ঘিরে রেখেছে।

শপিং সেন্টারটি চারিদিক থেকে কর্তৃপক্ষ ঘেরাও করে রেখেছে। ওই এলাকার আশেপাশের মানুষকে পুলিশ সতর্ক করে বলেছে যেন তারা ঘরের ভেতরে থাকে।

জানা গিয়েছে, ওই ঘাতক অফিসার প্রথমে তার কমান্ডিং অফিসারের ওপর হামলা চালিয়ে সামরিক ক্যাম্প থেকে বন্দুক ও বিস্ফোরক চুরি করে। এরপর ওই ব্যক্তি কোরাট শহরের একটি বৌদ্ধ মন্দির এবং একটি শপিং সেন্টারে এলোপাথাড়ি গুলি চালান।

স্থানীয় মিডিয়ায় প্রকাশিত ভিডিও ফুটেজে দেখা গিয়েছে যে, সন্দেহভাজন ব্যক্তি জিপের মতো একটি গাড়ি থেকে মুয়াং জেলার টার্মিনাল ২১ শপিং সেন্টারের সামনে নামছেন এবং এলোপাথাড়ি গুলি চালাচ্ছেন।