করাচি: পাকিস্তানে ভয়াবহ জঙ্গি হামলা। করাচির স্টক এক্সচেঞ্জে হামলা চালিয়েছে একদল জঙ্গি। এখনও পর্যন্ত ২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। আহত অনেকে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

২৬/১১ মুম্বই হামলার কায়দায় হামলা হয়েছে বলে খবর। বিল্ডিং ফাঁকা করার কাজ চলছে। ভিতর থেকে গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। বাইরে থেকেও চলছে ফায়ারিং।

বিল্ডিং টি একটি হাই সিকিউরিটি জোনে রয়েছে। ওই বিল্ডিংয়ে একাধিক ব্যাংকের অফিস রয়েছে বলেও জানা গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত চার জঙ্গিকে মারা সম্ভব হয়েছে পাক সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর। ভিতরে আরও জঙ্গি লুকিয়ে আছে কিনা, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

পাক সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, সোমবার সকাল ৯ টা নাগাদ সশস্ত্র কিছু লোকজন স্টক এক্সচেঞ্জের ভিতরে ঢোকে। বিল্ডিংয়ের গেটে গ্রেনেড হামলা চালায় প্রথমে। তাতেই দু’জনের মৃত্যু হয় ও অনেকে আহত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

পুলিশ সার্জেন ড. কারার আহমেদ আব্বাসি জানিয়েছেন পাঁচজনের দেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছে হাসপাতালে। আহত হয়েছে পুলিশ সহ সাত জন।

কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় পুলিশ ও রেঞ্জার অফিসাররা। সেখানেই খতম করা হয় চার বন্দুকবাজকে। আপাতত সবাইকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চলছে। মৃত হামলাকারীদের কাছ থেকে অস্ত্র ও গ্রেনেড উদ্ধার করা হয়েছে।

আহতের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। ফলে উদ্ধারকাজে ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছেন পাকিস্তানের সমাজসেবী সংস্থা এধি ফাউন্ডেশনের সদস্যরা। রয়েছেন সংস্থার প্রধানও।

 

 

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ