মুম্বই: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন ছ’ বছর আগে৷ কিন্তু ক্রিকেটে তিনি এখনও ‘ঈশ্বর’ রূপে পূজিত হন৷ তিনি সচিন রমেশ তেন্ডুলকর৷ বুধবার ৪৬-এ পা দিয়েছেন লিটল মাস্টার৷ জন্মদিনের শুভেচ্ছা পেয়েছেন সারা বিশ্ব থেকে৷ কিন্তু বন্ধুর জন্মদিনে নিজের গলায় গান গেয়ে টুইটারে সচিনকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিনোদ কাম্বলি৷ রি-টুইট করে ট্রোলড হলেন সচিন৷

‘ইয়াদ করেগি দুনিয়া তেরা মেরা আফসানা…৷’ প্রিয় বন্ধুর জন্মদিনে নিজেল গলায় এই গান শোনালেন কাম্বলি৷ গানের ভিডিও দিয়ে সচিনকে টুইট করেন কাম্বলি৷ গান শোনার পর টুইটারে ভিডিও-র উত্তর দিয়ে সচিন লেখেন, গানটা দারুণ লাগল৷ কিন্তু আমি এটা ভেবে অবাক হয়ে যাচ্ছি, তোর দাঁড়ি পাকলেও ভ্রু কী করে এখনও কালো রয়েছে৷’

আরও পড়ুন: জন্মদিনেই বোর্ডের নোটিশ মাস্টার ব্লাস্টারকে

স্কুল ক্রিকেট থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পর্যন্ত তাঁদের বন্ধুত্বের কথা জানে ক্রিকেটবিশ্ব৷ মাঝে কয়েকটা বছর ভুল বোঝাবুঝিতে দুরত্ব বাড়লেও এখন আবার সেই পুরনো বন্ধুত্বে ফিরেছেন সচিন-কাম্বলি৷ বন্ধু সচিনের ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে মেন্টরের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে কাম্বলিকে৷ সচিনকে পাঠানো কাম্বলির জন্মদিনের শুভেচ্ছা ভিডিও শেয়ার করেছেন অনেক ক্রিকেট ফ্যান৷

খেলা ছেড়েছেন ২০১৩ নভেম্বরে৷ ভারতীয় তথা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখনও সমান প্রাসঙ্গিক মাস্টার ব্লাস্টার৷ ২৪ এপ্রিল, ১৯৭৩৷ মুম্বইয়ে জন্ম হয়েছিল আধুনিক ক্রিকেট ডনের৷ ২০০ টেস্ট, ৪৬৩টি ওয়ান ডে এবং ৩৪,৩৫৭ আন্তর্জাতিক রান ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০০ সেঞ্চুরির মালিক৷ কিংবদন্তি এই ক্রিকেটারের পথ চলা শুরু হয়েছিল দাদরের শিবাজি পার্কে রমাকান্ত আচরেকরের স্যারের কাছে৷ বাকিটা ইতিহাস৷

আরও পড়ুন: জন্মদিনে শুভেচ্ছার বন্যায় ভাসছেন মাস্টার ব্লাস্টার

একই গুরুর শিষ্য সচিন ও কাম্বলি ভারতীয় দলেও একই সঙ্গে খেলেছেন৷ কিন্তু ১৯৮৮ সালে হ্যারিস শেফিল্ড সেমিফাইনালে সেন্ট জেভিয়ার্স হাই স্কুলের বিরুদ্ধে সারাশ্রম হয়ে ৬৬৪ রানের ম্যারাথন পার্টনারশিপ গড়ে বিশ্বকে চমকে দিয়েছিলেন সচিনও কাম্বলি৷ এর মধ্যে ৩২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন সচিন আর ৩৪৯ রানে অপরাজিত ছিলেন কাম্বলি৷