চন্ডীগড়: গত বছর এই সময়টা ইংল্যান্ডের মাটিতে তখন বিশ্বকাপের চরম উত্তেজনায় নিমজ্জিত ক্রিকেট অনুরাগীরা। হঠাৎ করেই ১০ জুন অর্থাৎ, গত বছর এই দিনটায় অনুরাগীদের হতাশ করে ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন যুবরাজ সিং। আক্ষরিক অর্থেই ভারতীয় ক্রিকেটের ‘প্রিন্স’ যুবরাজের বাইশ গজকে বিদায় জানানোর খবরে কেউই হতবাক হননি। তবে বিদায়বেলাটা আরেকটু সুখের হতেই পারত ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম কান্ডারির।

অবসরের বর্ষপূর্তিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় যুবরাজকে নিয়ে আবেগঘন পোস্টের ঝড়। অনুরাগীদের ভালোবাসায় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে অবসরের বর্ষপূর্তিতে বার্তা দিয়েছেন যুবরাজ নিজেও। এক বার্তায় যুবি লিখেছেন, ‘প্রিয় ফ্যানেরা, আমি আপ্লুত একইসঙ্গে তোমাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। ক্রিকেট সবসময় আমার জীবন হয়ে থাকবে। যেমনভাবে তোমরাও আমার জীবনে সবসময় অঙ্গাঙ্গিকভাবে জড়িয়ে থাকবে।’

যুবরাজ আর লেখেন, ‘একজন দায়িত্বশীল নাগরিক হিসেবে কোভিড১৯-কে হারাতে আমাদের উচিৎ সরকারি নির্দেশিকা মেনে চলা। একইসঙ্গে আসুন কঠিন পরিস্থিতিতে প্রয়োজনীয় মানুষের পাশে দাঁড়াই আমরা।’ যুবরাজের বার্তা স্বাভাবিকভাবেই নজর কেড়েছে নেটাগরিকদের।

অনুরাগীদের বার্তা তো ছিলোই পাশাপাশি অবসরের বর্ষপূর্তিতে যুবরাজকে বিশেষ বার্তা পাঠিয়েছেন মাস্টার-ব্লাস্টার। যেখানে জাতীয় দলে যুবরাজকে নিয়ে ‘ফার্স্ট ইম্প্রেশন’ শেয়ার করেছেন তিনি। দু’জনের একটি ছবি পোস্ট করে বার্তায় সচিন যুবরাজকে লিখেছেন, ‘একবছর হয়ে গেল তুমি অবসর নিয়েছো। তোমাকে নিয়ে আমার প্রথম স্মৃতি চেন্নাই ক্যাম্পে। দেখেই মনে হয়েছিল দারুণ অ্যাথলেটিক তুমি একইসঙ্গে পয়েন্টে ভীষণ দ্রুত। তোমার ছক্কা হাঁকানোর ক্ষমতা না হয় নাই বললাম। তুমি প্রমাণ করেছো যে বিশ্বের যে কোনও মাঠ তুমি ছক্কা হাঁকিয়ে পার করতে পারো।’

১৯ বছরের বর্ণময় কেরিয়ারে ৩০৪টি ওয়ান-ডে, ৪০টি টেস্ট এবং ৫৮টি টি২০ ম্যাচ খেলেছেন যুবরাজ। যার মধ্যে ১৪টি শতরান এবং ৫২টি অর্ধশতরান সহ ওয়ান-ডে’তে যুবির সংগ্রহে ৮,৭০১ রান। এই ফর্ম্যাটেই সবচেয়ে সফল তিনি। ২০১১ বিশ্বকাপে ‘ম্যান অফ দ্য টুর্নামেন্ট’ তাঁর মুকুটে এক অনন্য পালক। পাশাপাশি ২০০৭ টি২০ বিশ্বকাপে স্টুয়ার্ট ব্রডকে এক ওভারে ছয় ছক্কা হাঁকিয়ে অনুরাগীদের হৃদয়ে চিরতরে স্থান করে নিয়েছিলেন যুবি। গতবছর আজকের দিনেই ক্রিকেটের সমস্ত ফর্ম্যাট থেকে অবসর নেন ‘পঞ্জাব কা পুত্তর’।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ