লন্ডন: আইসিসি’র হল ফেমে জায়গা করে নিলেন কিংবদন্তি সচিন তেন্ডুলকর, অ্যাল্যান ডোনাল্ড ও ক্যাথরিন ফিৎজপ্যাট্রিক। বৃহস্পতিবার লন্ডনে অনুষ্ঠিত আইসিসি’র একটি অনুষ্ঠানে অনন্য সম্মানে সম্মানিত করা হল তিন দেশের তিন প্রাক্তন ক্রিকেটারকে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সারাজীবনের স্বীকৃতিস্বরূপ কোনও ক্রিকেটারকে হল অফ ফেমে স্থান দিতে আইসিসি’কে বেশ কিছু প্রোটোকলের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। আইসিসি’র গাইডলাইন অনুযায়ী আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে  অন্তত ৫ বছর আগে সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটারের অবসর গ্রহণ করা আবশ্যক। ২০১৩ নভেম্বরে কেরিয়ারের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলেছিলেন সচিন রমেশ তেন্ডুলকর।

২০০টি টেস্ট ম্যাচ, সবধরনের ফর্ম্যাটে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের অধিকারী, সর্বোপরি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০০টি শতরানের মালিক মাস্টার-ব্লাস্টার অবসর গ্রহণের প্রায় ছ’বছর বাদে আইসিসি’র হল ফেমে জায়গা করে নিলেন। ভারতের ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে এই কৃতিত্ব অর্জন করলেন বান্দ্রার বাদশা।

আরও পড়ুন: জিম্বাবোয়ে ক্রিকেটের সদস্যপদ খারিজ করল আইসিসি

‘দীর্ঘ আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে যারা আমার পাশে ছিল এই সুন্দর মুহূর্তে আমি তাঁদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। মা-বাবা, দাদা অজিত, স্ত্রী অঞ্জলি ছিল আমার শক্তির পিলার। পাশাপাশি প্রথম জীবনে রমাকান্ত আচরেকরের মতো একজন কোচকে পেয়ে আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি।’ হল অফ ফেম সম্মান প্রদান অনুষ্ঠানে জানান সচিন।

আরও পড়ুন: অসমের বন্যায় বিপর্যস্ত বন্যপ্রাণ, বিশেষ আর্জি হরভজন-রোহিতদের

সচিনের পাশাপাশি বৃহস্পতিবার আইসিসি’র হল অফ ফেমে জায়গা করে নিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট ইতিহাসে অন্যতম সফল বোলার অ্যালান অ্যান্থনি ডোনাল্ড। ৭২টি টেস্ট ম্যাচে ৩৩০টি উইকেট ও ১৬৪টি ওয়ান ডে ম্যাচে ২৭২টি উইকেটের মালিক ডোনাল্ড কেরিয়ারের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলেছিলেন ২০০৩ ফেব্রুয়ারিতে। বাইশ গজ থেকে বানপ্রস্থে যাওয়ার দেড় দশকেরও বেশি সময় বাদে আইসিসি’র হল অফ ফেমে অন্তর্ভুক্তি হল প্রাক্তন প্রোটিয়া ফাস্ট বোলারের।

আরও পড়ুন: নেটে ফিরে যুবরাজের ‘বোটলক্যাপ চ্যালেঞ্জ’ নিলেন গব্বর

হল অফ ফেমে জায়গা করে নেওয়ার অনুভুতি প্রসঙ্গে জানাতে গিয়ে ডোনাল্ড বলেন, ‘হল অফ ফেমে অন্তর্ভুক্তির ই-মেল পেয়ে চমকে গিয়েছিলাম। এটা আমায় দারুণভাবে নাড়া দিয়েছিল কারণ, এমন সম্মানকে তুমি কোনওভাবেই খাটো করতে পারো না।’ একইসঙ্গে শুরুর দিনগুলোকে স্মরণ করে দীর্ঘ কেরিয়ারে প্রশিক্ষক, মেন্টর হিসেবে যারা তাঁকে উদ্বুদ্ধ করে গিয়েছেন, প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানান ‘সাদা বিদ্যুৎ’।

সচিন ও ডোনাল্ডের সঙ্গে মহিলা ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসি’র হল ফেমে অন্তর্ভুক্তি হল মহিলা ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে জোরে বোলার হিসেবে পরিচিত ক্যাথরিন ফিৎজপ্যাট্রিকের। ১৩টি টেস্টে ৬০টি উইকেট সংগ্রহকারী প্রাক্তন এই অস্ট্রেলিয়া মহিলা ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে সর্বমোট উইকেটসংখ্যা ১৮০। অনন্য সম্মানে সম্মানিত হয়ে ক্যাথরিন জানান, ‘ক্রিকেট ইতিহাসের জায়ান্টদের সঙ্গে তালিকাভুক্ত হতে পারা অত্যন্ত সম্মানের।’