স্টাফ রিপোর্টার, এগরা: রাতের অন্ধকারে মন্দিরের তালা ভেঙ্গে লক্ষাধিক টাকার সামগ্রী নিয়ে চম্পট দিল চোরের দল। দুঃসাহসিক এই চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব মেদিনীপুরের এগরা পুরসভার ১নং ওয়ার্ডে।

জানা গিয়েছে, শুক্রবার সকালে মন্দিরে পূজো ক‍রতে এসে ব্রাহ্মণ দেখতে পান, মন্দিরের দরজার তালা ভাঙা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। তারপর তিনি মন্দিরের ভিতর ঢুকে দেখেন, ঠাকুরের সমস্ত গয়না ও প্রনামী বাক্সে থাকা টাকাও চুরি হয়ে গিয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় লক্ষাধিক টাকার জিনিস খোয়া গিয়েছে বলে অভিযোগ জানিয়েছেন মন্দির কর্তৃপক্ষ।

চুরির বিষয়ে মন্দির পরিচালন কমিটির সভাপতি যুগল কুমার মন্ডল বলেন, ”২০০৪ সালে শহরের বুকে আমাদের এই রাধাগোবিন্দ জীউ ও মহাবীর মন্দির গড়ে ওঠে। গত বছর এই মন্দির চুরির ঘটনা ঘটেছিল। ফের আবার দরজার তালা ভেঙে মন্দিরে চুরির ঘটনা ঘটল। মন্দিরে থাকা প্রায় লক্ষাধিক টাকার ঠাকুরের সোনার গয়না চুরি গিয়েছে। এই ঘটনার বিষয়ে আমরা পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছি।”

এদিকে এগরা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে চুরি যাওয়া জায়গাটি ঘুরে দেখেন। তবে কে বা কারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I