জয়পুর: এবার জমিজমা সংক্রান্ত বিবাদের জেরে মন্দিরের এক পুরোহিতকে জ্যান্ত পুড়িয়ে মারল দুষ্কৃতীরা। নারকীয় এই হত্যাকান্ডটি ঘটেছে রাজস্থানের কারাউলি জেলার বকনা গ্রামের সাপত্রা এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছেন, মৃত ওই পুরোহিতের নাম বাবুলাল বৈষ্ণব।

তিনি কারাউলি জেলার ওই গ্রামের একটি রাধাকৃষ্ণ মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ছিলেন। সেখানে তাঁর প্রায় ৫.২ একর জমি ছিলো যা ওই রাধাকৃষ্ণ মন্দিরের জমির অন্তর্ভুক্ত ছিল। তবে জমিটি প্রধান পুরোহিত বাবুলালকে দান করা হয়েছিলো। আর তারপরই যা নিয়ে স্থানীয় মিনা সম্প্রদায়ের মানুষের মধ্যে শুরু হয় অশান্তি।

জানা গিয়েছে, জমিটি ভাগের পর পুরোহিত বাবুলাল বৈষ্ণব নিজের অংশটিকে মাটি দিয়ে সমান করার কাজ করছিলো। কেননা তিনি চেয়েছিলেন, ওই জমিতে নিজের জন্য একটি ঘর তৈরি করতে। আর এই খবরেই বিগড়ে বসে স্থানীয় মিনা সম্প্রদায়ের মানুষজন।

তারা মন্দিরের ওই জমিকে নিজেদের বলে দাবি করতে থাকেন। গত বুধবার এই নিয়ে বচসার সময় ক্ষেতে থাকা বাজরায় আগুন ধরিয়ে দেয় কয়েকজন দুষ্কৃতী। বাবুলাল তাতে বাধা দিতে গেলে তাঁর শরীরেরও পেট্রল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়।

বিষয়টি দেখতে পেয়ে স্থানীয় মানুষরা সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে জয়পুরের এসএমএস হাসপাতালে নিয়ে এসে ভরতি করেন। বৃহস্পতিবার সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তাঁর।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, মৃত পুরোহিতের পরিবারের তরফে দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে৷ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত কৈলাশ মীনাকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করেছে জেলা পুলিশ। এছাড়াও এই ঘটনায় তার পরিবারের আর কেউ জড়িত আছে কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এদিকে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্তে নেমেছে জেলা পুলিশ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।