হায়দ্রাবাদ: বাবরি মসজিদের পক্ষে স্লোগান তোলায় গ্রেফতার করা হল দু’জন মহিলাকে। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে সাইদাবাদের একটি জমায়েতে, অভিযোগ যা বেআইনিভাবে আয়োজিত হয়েছিল।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, হায়দ্রাবাদের এই ঘটনা ঘটেছে বৃহস্পতিবার। সাইদাবাদ পুলিশ জানিয়েছে, সাইদাবাদের জীবনঈয়ারজং কলোনি অঞ্চলে কিছু মুসলিম কমিউনিটির মহিলারা প্রার্থনার জন্য কোন অনুমতি না নিয়েই জমায়েতের আয়োজন করেছিল। এই ঘটনার পর এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ আরও জানায়, “জিল্লে হুমা মানে একজন মহিলার নেতৃত্বে প্রায় ১১০ জন মুসলিম মহিলা এবং মেয়েরা উজালেশা ঈদগা মাঠে প্রার্থনার জন্য জমায়েত করেছিল। ২০ মিনিটের প্রার্থনার পর মাইক হাতে নিয়ে হুমা বাবরি মসজিদের পক্ষে উসকানিমূলক স্লোগান তুলেছিল।” আরও জানা গিয়েছে, ওই একদল মহিলা বিতর্কিত অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায়’কেও জনসমক্ষে সমালোচনা করেছেন।

সাইদাবাদের এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ভারতীয় দন্ডবিধির ১২৪এ (সিডিশন), ১৫৩এ (প্রোমোটিং এনিমিটি), ১৫৩বি, ৫০৫-১(বি), ৫০৫-১(সি), ৫০৫-২, ২৯৫এ, ৩৪ এবং ১০৯ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

নভেম্বরের ৯ তারিখ বিতর্কিত অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করেছে সুপ্রিম কোর্ট। যদিও নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেই রায়দান করেছে শীর্ষ আদালত। তবে অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম রায়কে কেন্দ্র করে মোট ৩৭ জনকে আটক করা হয়েছে এবং উত্তর প্রদেশে ১২টি এফআইআর দায়ের হয়েছে বলে জানিয়েছে উত্তর প্রদেশ সরকার।

অযোধ্যা রায়ের পর এই একই কারণে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে অল-ইন্ডিয়া-মজলিস-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন প্রেসিডেন্ট আসাদুদ্দিন ওয়েইসির বিরুদ্ধে। অযোধ্যা মামলার রায় নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের অভিযোগ এনে আইনজীবী পবন কুমার জাহাঙ্গিরাবাড পুলিশ স্টেশনে এফআইআর দায়ের করেছেন। তিনি অভিযোগ এনেছেন তার মন্তব্যে সমাজের একশ্রেনীর মানুষকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন।