শ্রীনগর: রমজান মাস শেষের মুখে৷ পবিত্র মাসেও শান্তির লেশমাত্র পাননি উপত্যকাবাসী৷ বরং দিন দিন হিংসায় জ্বলছে কাশ্মীর৷ অস্ত্রবিরতি ঘোষণার পর শুক্রবার কাশ্মীরে সেনার গুলিতে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটল৷ মৃত যুবকের নাম বিকাশ আহমেদ(১৮)৷ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় তার৷ অপরদিকে সেনার গুলিতে জখম হয়েছেন এক মহিলা৷ তাঁর পায়ে গুলি লেগেছে৷ তবে তিনি আশঙ্কামুক্ত৷

জানা গিয়েছে, দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে সেনাকে লক্ষ্য পাথর ছোঁড়ে বিক্ষোভকারীরা৷ পাল্টা প্রত্যাঘাত করে নিরাপত্তা বাহিনী৷ পুলওয়ামার পুলিশ সুপার মহম্মদ আসলাম জানান, গাড়িতে এলাকায় টহলদারি দিচ্ছিল সেনা৷ নৌপারার কাছে আসতেই তারা দেখেন রাস্তার উল্টো দিতে গাড়ি দাঁড় করিয়ে রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷

গাড়ির মালিকদের রাস্তা থেকে গাড়ি সরিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করে সেনা৷ তখনই স্থানীয় বাসিন্দারা জড়ো হয়ে তাদের লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়তে থাকে৷ মৌখিক ভাবে বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করার পরেও তারা আরও হিংসাত্মক হয়ে ওঠে৷ শূন্যে গুলি ছুড়ে পাল্টা জবাব দেয় সেনা৷ তখনই একটি গুলি গিয়ে লাগে আহমেদের গায়ে৷  অপর একটি গুলি লাগে এক মহিলার পায়ে৷ দু’জনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে আহমেদ মারা যায়৷ তবে ওই মহিলা বিপদ মুক্ত বলে খবর৷

শুক্রবার সারাদিন বিক্ষিপ্তভাবে হিংসার খবর সামনে এসেছে কাশ্মীর থেকে৷ এ দিনই শ্রীনগরে পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়ে বিক্ষোভকারীরা৷ তাতে দুই পুলিশ কর্মী সহ তিন জন স্থানীয় বাসিন্দা জখম হন৷ অপরদিকে সাংবাদিক খুনের কিনারায় বড় সাফল্য পেয়েছে শ্রীনগর পুলিশ৷ এ দিনই প্রধান অভিযুক্ত গ্রেফতার হয়েছে৷