নয়াদিল্লি: মেয়ের হাতে খুন দিল্লি পুলিশের হেড কনস্টেবল। উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের ঘটনা। মেয়ে ও তার বয়ফ্রেন্ড মিলে ওই কনস্টেবলকে খুন করেছে বলে তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ।

ওই মহিলা কনস্টেবলেরনাম শশী শুক্লা। দিল্লির ব্রিজ বিহার থানায় পোস্টিং ছিল তাঁর। প্রাথমিক তদন্তেই মেয়েকে খুনের জন্য সন্দেহ করে পুলিশ। নাবালিকা মেয়েকে ধানায় ডেকে চলে জিজ্ঞাসাবাদ।

বেশ কিছুক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদের পর জেরার মুখে কান্নায় ভেঙে পড়ে ওই নাবালিকা। খুনের কথা স্বীকার করে নেয় সে। জানায় যে, বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে সম্পর্কে মিশতে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছিল মা। আর সেটাই মেনে নিতে পারেনি মেয়ে। তাই এই খুনের ষড়যন্ত্র।

গাজিয়াবাদ পুলিশের সুপার মনীশ মিশ্র জানিয়েছেন, ওই মহিলা কনস্টেবল দিনের পর দিন মেয়েকে বারণ করেছিলেন যাতে সে ওই ছেলেটির সঙ্গে না মেশে। মায়ের বকাবকি সহ্য করতে পারছিল না দশম শ্রেনীর ছাত্রী ওই মেয়ে।

জানা গিয়েছে, গলা টিপে খুন করা হয়েছে কনস্টেবলকে। তাঁর স্বামী এসে ঘরের মধ্যে ওই মহিলাকে অচৈতণ্য অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। এরপরই তিনি থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেন।

এই ঘটনায় নাবালিকা মেয়ে ও তার প্রেমিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।