সিডনি: অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টিম ইন্ডিয়ার বিরাট ইতিহাস গড়া কেবল সময়ের অপেক্ষা বলে মনে হচ্ছে৷আঘটন না ঘটলে অস্ট্রেলিয়ার মাটি থেকে প্রথমবার টেস্ট সিরিজ জিতে দেশে ফিরতে চলেছে ভারতীয় দল৷ অন্তত সিডনি টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষে তেমন কোনও অঘটনের সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে৷

টেস্ট ইতিহাসে এর আগে কোনও ভারতীয় দল অস্ট্রেলিয়া সফরে সিরিজ জেতেনি৷ এবার কোহলিদের সামনে সুযোগ ছিল অপেক্ষাকৃত দূর্বল অস্ট্রেলিয়া দলের বিরুদ্ধে নতুন ইতিহাস রচনার৷ বলাবাহুল্য, সেই কাজটা যথাযথ সম্পন্ন করার দিকে এক পা এগিয়ে রেখেছে টিম ইন্ডিয়া৷

আরও পড়ুন: সিডনিতে রেকর্ড ঋষভ পন্তের

১৯৪৭-৪৮ মরশুম থেকে এই নিয়ে মোট ১২ বার অস্ট্রেলিয়া সফরে টেস্ট সিরিজ খেলছে ভারত৷ ১৯৮০-৮১, ১৯৮৫-৮৬ ও ২০০৩-০৪ সালের তিনটি অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারত টেস্ট সিরিজ ড্র করেছে৷ বাকি আটটি সিরিজ জিতেছে অস্ট্রেলিয়া৷

এবার চার ম্যাচের সিরিজে ভারত ইতিমধ্যে এগিয়ে রয়েছে ২-১ ব্যবধানে৷ সিরিজ হারের সম্ভাবনা আর নেই কোহলিদের৷ ফলে ঘরের মাঠে শেষবার অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের দখল নেওয়া টিম ইন্ডিয়া বর্ডার-গাভাসকর ট্রফির দখল নিজেদের কাছেই রেখে দিয়েছে৷ এবার ভারতের সামনে চ্যালেঞ্জ সিডনির শেষ টেস্টে না হেরে চলতি সিরিজে জয় নিশ্চিত করা৷

আরও পড়ুন: ঋষভের সেঞ্চুরি, রানের পাহাড়ে চড়ে ব্যাট ছাড়ল ভারত

ক্রিকেট অনিশ্চয়তার খেলা হলেও এসসিজি’তে অবশ্য ভারতের হারের সম্ভাবনা প্রায় নেই৷ দু’দিনের খেলা অতিক্রান্ত৷ প্রথম ইনিংসে ভারতের ৭ উইকেটে ৬২২ রানের বিশাল ইনিংসের দিকে তাকিয়ে কোহলিদের হারের আশঙ্কা করছেন না কেউই৷কেননা অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে একদিনে ভারতের প্রথম ইনিংস ছাপিয়ে যাওয়া অসম্ভভ৷ প্রথম ইনিংসে অজিরা অন্তত দু’দিন ব্যাট করলেও শেষ দিনে ভারতকে অলআউট করে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেওয়া সম্ভব নয় তাদের পক্ষে৷

বরং অজি ব্যাটসম্যানরা হঠকারীতা করে বসলে ভারত শেষ টেস্টে জয় তুলে নিতে পারে৷ নতুবা ড্র’য়ে নিস্পত্তি হতে পারে সিডনি টেস্ট৷ সুতরাং ভারতের চলতি টেস্ট সিরিজ জয় কার্যত নিশ্চিত৷

আরও পড়ুন: ডাবল সেঞ্চুরি হাতছাড়া পূজারার

গত বছর খাতায়-কলমে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ইংল্যান্ডেও সিরিজ জয়ের সুযোগ ছিল ভারতের সামনে৷ শেষমেশ প্রোটিয়াদের কাছে তিন ম্যাচের সিরিজ ১-২ ব্যবধানে হেরে বসে কোহলি অ্যান্ড কোং৷ ইংল্যান্ডের কাছে ১-৪ ব্যবধানে হারতে হয় পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।