কিংস্টোন: দেওয়াল লিখনটা পড়া যাচ্ছিল দ্বিতীয় দিনের শেষ বেলাতেই৷ ভারতের ৪১৬ রানের জবাবে পালটা ব্যাট করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় দিনের শেষে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ৮৭ রান তুলেছিল৷ তখনই বোঝা যাচ্ছিল যে কিংস্টোনে ফলো-অন এড়ানো কার্যত সম্ভব নয় ক্যারিবিয়ানদের পক্ষে৷ সম্ভব হয়ওনি৷ তবে এ যাত্রায় হোল্ডারদের ফলো-অনের লজ্জা থেকে মুক্তি দিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি৷ প্রথম ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে মাত্র ১১৭ রানে অল-আউট করা সত্ত্বেও পুনরায় তাদের ব্যাট করতে ডাকেননি বিরাট৷ বরং ২৯৯ রানের বিশাল লিডটাকে আরও বড় বোঝার আকারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ঘাড়ে চাপিয়ে দেওয়াই শ্রেয় মনে করেন কোহলি৷

আরও পড়ুন: প্রথম শিকার পূজারা, উচ্ছ্বসিত কর্নওয়াল

সাবাইনা পার্কের দ্বিতীয় দিনে হনুমা বিহারী টেস্ট কেরিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন৷ ইশান্ত শর্মা টেস্টে প্রথমবার হাফসেঞ্চুরির গণ্ডি টপকান৷ জসপ্রীত বুমরাহ টেস্ট কেরিয়ারে প্রথমবার হ্যাটট্রিক করার কৃতিত্ব অর্জন করেন৷ এমন ঘটনাবহুল দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়ে ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে তুলে নিয়েছিল ভারত৷ তৃতীয় দিনের শুরুতে সেই দাপটটাই বজায় রাখে টিম ইন্ডিয়া৷

আরও পড়ুন: প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচেও জয় ভারতের

গত দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান কর্নওয়াল ও হ্যামিল্টন কেরিয়ারের প্রথম টেস্ট ইনিংসে আউট হন যথাক্রমে ১৪ ও ৫ রান করে৷ কর্নওয়ালের উইকেটটি তুলে নেন মহম্মদ শামি৷ হ্যামিল্টনকে ফেরত পাঠান ইশান্ত শর্মা৷ ১৭ রান করে কেমার রোচ রবীন্দ্র জাদেজার বলে আউট হতেই যবনিকা পড়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসে৷ গ্যাব্রিয়েল নট-আউট থাকেন শূন্য রানে৷

আরও পড়ুন: চতুর্মুখী যৌন-সংসর্গে লিপ্ত হয়ে ফের শিরোনামে ওয়ার্ন

প্রথম ইনিংসে বুমরাহ ২৭ রানের বিনিময়ে ৬টি উইকেট দখল করেন৷ এটি তাঁর টেস্ট কেরিয়ারের সেরা বোলিং পারফরম্যান্স৷ তাঁর আগের সেরা বোলি পারফরম্যান্স ছিল ৩৩ রানে ৬ উইকেট৷ শামি নেন ৩৪ রানে ২টি উইকেট৷ ইশান্ত ও জাদেজা ১টি করে উইকেট নিয়েছেন৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।