অ্যান্টিগা: ম্যাচের প্রথম সেশন বাদ দিলে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের বাকি সময় চালকের আসনে ছিল টিম ইন্ডিয়া৷ দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ঘাড়ে বড় রানের বোঝা চাপিয়ে দেওয়ায় কোহলিদের জয়ের সম্ভাবনা উজ্জ্বল দেখাচ্ছিল৷ তবে জয়টা যে চতুর্থ দিনেই তুলে নেবে ভারত, তা আন্দাজ করা যায়নি আগে থেকে৷ প্রথম ইনিংসের মতো ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা দ্বিতীয় ইনিংসেও প্রতিরোধ গড়লে ম্যাচের শেষ দিনে উত্তেজক লড়াইয়ের সম্ভাবনা ছিল৷ শেষমেশ জেসন হোল্ডাররা ভারতের পেসার ত্রয়ীর সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করায় এক দিন বাকি থাকতেই প্রথম টেস্ট জিতে যায় ভারত৷

শুধু জয় বললে ভুল বলা হবে, বরং এটা ভারতের রেকর্ড জয় বলাই যথাযথ৷ কেননা দেশের বাইরে এটাই টিম ইন্ডিয়ার সব থেকে বড় রানের ব্যবধানে টেস্ট জয়৷ এর আগে গলে শ্রীলঙ্কাকে ৩০৪ রানে হারিয়েছিল ভারত৷ এতদিন সেটাই ছিল ভারতের রেকর্ড জয়৷ অ্যান্টিগায় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩১৮ রানে পরাস্ত করে কোহলিরা৷ ফলে এটাই এখন বিদেশের মাটিতে ভারতের সব থেকে বড় টেস্ট জয়ের নজির৷

আরও পড়ুন: ভালো পিচে টেস্ট ক্রিকেট কখনই বিরক্তিকর মনে হবে না: সচিন

ভারতের ২৯৭ রানের জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংসে অলআউট হয়ে যায় ২২২ রানে৷ দ্বিতীয় দফায় ব্যাট করতে নেমে তৃতীয় দিনের শেষে ভারত ৩ উইকেটে ১৮৫ রান তুলেছিল৷ তার পর থেকে খেলতে নেমে ভারত তাদের দ্বিতীয় ইনিংস ৭ উইকেটে ৩৪৩ রানে ডিক্লেয়ার করে দেয়৷ প্রথম ইনিংসের ৭৫ রানের লিড মিলিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের থেকে ৪১৮ রানে এগিয়ে থাকে ভারত৷ অর্থাৎ জয়ের জন্য ক্যারিবিয়ানদের সামনে ৪১৯ রানের টার্গেট ঝুলিয়ে দেয় টিম ইন্ডিয়া৷

শেষ ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ শুরু থেকেই পর পর উইকেট হারাতে থাকে৷ একসময় ১৫ রানে পাঁচ উইকেট খুইয়ে বসে তারা৷ দলগত ৫০ রানের মাথায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ অল-আউট হয়ে গিয়েছিল প্রায়৷ তবে কেমার রোচ ডিআরএসের সৌজন্যে বেঁচে যান৷ পরে রোচ ও কামিন্স ব্যাট চালিয়ে কোনও রকমে দলকে ১০০’র গণ্ডি ছুঁতে সাহায্য করেন৷ ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ইনিংসে অল-আউট হয় ১০০ রানে৷ রোচ ৩৮, কামিন্স ১৯ ও রোস্টন চেস ১২ রান করেন৷ বাকিরা দু’অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি৷

আরও পড়ুন: স্টোকসের অতিমানবিক ইনিংসে অবিশ্বাস্য জয় ব্রিটিশদের

বুমরাহ দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচটি উইকেট নেন, যার মধ্যে চার জনকে তিনি বোল্ড আউট করেন৷ ইশান্ত নিয়েছেন ৩টি উইকেট৷ ২টি উইকেট মহম্মদ শামির৷ প্রথম ইনিংসে ৮১ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ১০২ রান করার সৌজন্যে ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হন রাহানে৷