অকল্যান্ড: লোকেশ রাহুল ও শ্রেয়স আইয়ারের ভয়ডরহীন ব্যাটিংয়ে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচেও দাপুটে জয় তুলে নিল টিম ইন্ডিয়া৷ সেই সঙ্গে ৫ ম্যাচের টি-২০ সিরিজে ভারত এগিয়ে গেল ২-০ ব্যবধানে৷

ইডেন পার্কে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে নিউজিল্যান্ড৷ প্রথম ওভারে জোড়া ছক্কায় ইনিংস শুরু করলেও কিউয়িরা নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৩২ রানে আটকে যায়৷ বুমরাহ-শামির পেস জুটি কার্যত হাত বেঁধে রাখে নিউজিল্যান্ড ব্যাটসম্যানদের৷ রবীন্দ্র জাদেজা উইকেট তোলার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন৷

আরও পড়ুন: সৌরভ থেকে বিরাট উইকেটের পিছনে রাহুলেই আস্থা

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারত ১৭.৩ ওভারে ৩ উইকেটের বিনিময়ে ১৩৫ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়৷ লোকেশ রাহুল সিরিজে উপর্যুপরি দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরি করে ১৫ বল বাকি থাকতেই দলের ৭ উইকেটে জয় নিশ্চিত করেন৷ শ্রেয়স আইয়ার অল্পের জন্য অর্ধশতরান হাতছাড়া করেন৷ টিম সাউদি ছাড়া তেমন একটা প্রভাবশালী প্রমাণিত হননি নিউজিল্যান্ডের আর কোনও বোলারই৷

নিউজিল্যান্ডের হয়ে ওপেন করতে নেমে ২০ বলে ৩৩ রান করেন মার্টিন গাপ্তিল৷ অপর ওপেনার কলিন মুনরো ২৫ বলে ২৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন৷ কেন উইলিয়ামসন ২০ বলে ১৪ রান করে আউট হন৷ কলিন ডি’গ্র্যান্ডহোম ও রস টেলরের সংগ্রহ যথাক্রমে ৩ ও ১৮৷ টিম সেফার্ত অুপরাজিত থাকেন ২৬ বলে ৩৩ রান করে৷

আরও পড়ুন: ভারতে বিশ্বকাপ না-খেলার হুমকি পাকিস্তানের

জাদেজা ৪ ওভারে ১৮ রানের বিনিময়ে ২টি উইকেট দখল করেন৷ বুমরাহ নেন ২১ রানে ১টি উইকেট৷ এছাড়া ১টি করে উিকেট দখল করেন শার্দুল ঠাকুর ও শিবম দুবে৷ শামি উইকেট না পেলেও ৪ ওভারে ২২ রানের বেশি খরচ করেননি৷

ভারতের হয়ে ওপেন করতে নেমে দ্বিতীয় ম্যাচেও ব্যর্থ হন রোহিত শর্মা৷ প্রথম ম্যাচে ৭ রানে আউট হওয়া হিটম্যান এই ম্যাচে সাজঘরে ফেরেন ৮ রান করে৷ লোকেশ রাহুল প্রথম ম্যাচে ৫৬ রান করে আউট হয়েছিলেন৷ এই ম্যাচে তিনি ব্যক্তিগত ৫৭ রানে অপরাজিত থাকেন৷ বিরাট কোহলি আউট হন ১১ রান করে৷ শ্রেয়স আইয়ার ৪৪ রান করে উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসেন৷ শিবম দুবে অপরাজিত থাকেন ৮ রান করে৷ টিম সাউদি ২০ রানে ২টি উইকেট নেন৷ ৩৩ রান খরচ করে ১টি উইকেট নিয়েছেন ইস সোধি৷ ম্যাচের সেরা হয়েছেন লোকেশ রাহুল৷

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব