স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সরস্বতী পুজোর আগের দিনই শিক্ষক শিক্ষিকাদের সুখবর শোনালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার থেকে রাজ্য়ের সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের নিজেদের জেলাতেই পোস্টিং পাবেন। টুইট করে একথা জানিয়েছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “শিক্ষক-শিক্ষিকারা আমাদের গর্ব। তাঁরাই আমাদের আসল অভিভাবক। এই সমাজ ও দেশ গঠনের প্রতি তাঁদের অনেক অবদান রয়েছে। তাঁরাই ছাত্রদের শিক্ষাদান করে আগামীদিনের নেতা তৈরি করেন।

তিনি আরও বলেন, “এখন সরস্বতী পুজো, আমাদের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও শ্রদ্ধা জানানোর জন্যও আদর্শ সময়। তাই এই উপলক্ষে রাজ্যের সমস্ত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সুবিধার্থে একটি নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রত্যেককে তাঁদের নিজের জেলাতেই পোস্টিং দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।”

স্কুল সর্ভিস কমিশন গঠন হওয়া পর থেকে সরকারি ও সরকার পোষিত স্কুলগুলিতে শিক্ষক শিক্ষিকা নিয়োগ হয় এই কমিশনের মাধ্যমে। আর তাতে বেশির ভাগ শিক্ষক শিক্ষিকার পোস্টিং হয় নিজের বাসস্থান থেকে বেশ দূরের স্কুলে। কোন কোন ক্ষেত্রে সে দুরত্ব হয়ে ‌যায় কয়েকশো কিলো মিটার। এই সমস্যায় ভুক্তভাগী হাজার হাজার শিক্ষক শিক্ষিকা। ‌

যেহেতু প্রথম দিকে স্কুল সর্ভিস কমিশনে নিয়োগের ক্ষেত্রে বদলির কোন নিয়ম ছিল না তার ফলে বহুদিন এ সমস্যার কোন সমাধান সুত্রও ছিল না। পরে মিউচুয়াল ও জেনারেল ট্রান্সফার চালু হলেও প্রশাসনিক জটিলতা কাটিয়ে হাতে গোনা কয়েক জন সেই সুবিধা গ্রহণ করতে পরেছেন। তবে গতবছর শিক্ষক দিবসের দিনেই শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন শিক্ষকদের দেওয়া হবে নিজের জেলায় পোস্টিং। কিন্তু তারপরও অনেক শিক্ষক-শিক্ষিকারাই নিজের জেলার পোস্টিং পায়নি৷

এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় স্বাভাবিকভাবেই খুশি শিক্ষকমহল৷ ওয়াকিবহল মহল মনে করছে, পুরভোটের আগে রাজ্যের শিক্ষক শিক্ষিকাদের মন পেতেই তাঁদের দীর্ঘদিনের দাবি সরকার মেনে নিল৷