অবস্থানের ছবি

কলকাতা: শুক্রবারই উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের মেধাতালিকা প্রকাশ করছে স্কুল সার্ভিস কমিশন (এসএসসি)। ইতিমধ্যেই ওয়েবসাইটে এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে। সাতদিনের মধ্যে মেধাতালিকা প্রকাশ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। সেই নির্দেশ অনুযায়ী বুধবার মেধাতালিকা প্রকাশ করার বিজ্ঞপই দিল কমিশন।

এসএসসির চেয়ারম্যান সৌমিত্র সরকার জানিয়েছেন, আদালতের নির্দেশে এবারই প্রথম বিভিন্ন বিভাগে কোনও প্রার্থীর প্রাপ্ত নম্বর উল্লেখ করে মেধাতালিকা প্রকাশিত হবে।

গত ১ অক্টোবর কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি মৌসুমি ভট্টাচার্য নির্দেশ দিয়েছিলেন, সাতদিনের মধ্যে প্রত্যেক প্রার্থীর লিখিত পরীক্ষা, ইন্টারভিউ এবং অ্যাকাডেমিক বিষয়ে প্রাপ্ত নম্বর আলাদা আলাদা করে দিয়ে মেধাতালিকা প্রকাশ করতে হবে। কিন্তু তালিকা প্রকাশ করেই নিয়োগ করা যাবে না। ২১ দিন সময় দিতে হবে। সেই তালিকা দেখে কোনও প্রার্থীর আপত্তি থাকলে, সেটা তিনি যাতে এসএসসিতে লিখিতভাবে জানানোর সুযোগ পান, সেইজন্যই সময় চাওয়া হয়।

জানা গিয়েছে, ৪ অক্টোবর, শুক্রবার মেধাতালিকা প্রকাশ করার পরে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত তা দেখে অভিযোগ জানানোর ব্যবস্থা রেখেছে কমিশন। শনি-রবিবার, পুজোর ক’টা দিন বা অন্য কোনও ছুটির দিনেও অভিযোগ জানানো যাবে। অভিযোগ গ্রহণের জন্য ছুটির দিনেও ব্যবস্থা রাখবে এসএসসি।

আগে এসএসসির মেধাতালিকায় প্রার্থীর নাম এবং মোট প্রাপ্ত নম্বর প্রকাশ করা হত। কিন্তু কম্বাইন্ড মেরিট লিস্ট প্রকাশিত হওয়ার পর তা নিয়ে অনেক সমস্যা হয়। দীর্ঘ আন্দোলনও হয়। আন্দোলনকারীদের যুক্তি ছিল, কম্বাইন্ড মেরিট লিস্টে নাম আছে, তাই চাকরি দিতে হবে। সরকার তথা এসএসসি আবার সেই দাবি মানতে চায়নি। কিন্তু সেই আন্দোলনের জের বহুদিন চলে। সল্টলেকে এসএসসি অফিসের সামনে মাসের পর মাস, অবস্থানে বসে বিক্ষোভ দেখান প্রার্থীরা। তারপর থেকেই তালিকা প্রকাশের ব্যাপারটা সরকারের নির্দেশেই বন্ধ করে দিয়েছিল এসএসসি। বিগত কয়েকটি ক্ষেত্রে যে প্রার্থী চাকরি পাচ্ছিলেন, তিনিই শুধু জানতে পারছিলেন তাঁর প্রাপ্ত নম্বর। বিভিন্ন মহল থেকেই স্বচ্ছতার জন্য বিস্তারিত মেধাতালিকা প্রকাশের দাবি ওঠে।