কলকাতা: তথাগত রায় আর বিতর্ক যেন একে অপরের পরিপূরক! শতবর্ষের অনুষ্ঠানের ঝলমল করছে লাল-হলুদ তাবু৷ আনন্দ-উৎসবে মাঝে বিতর্কিত মন্তব্য করে লক্ষ লক্ষ ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের চক্ষশূল হয়ে উঠলেন প্রাক্তন বিজেপি নেতা তথা মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়।

বৃহস্পিতবার ১ অগস্ট শতবর্ষে পা-দিচ্ছে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব৷ রবিবার থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে শতবর্ষের অনুষ্ঠান৷ পদযাত্রা থেকে সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান আবেগে ভেসেছে লাল-হলুদ সমর্থকরা৷ কিন্তু এর মধ্যেই বাঙাল-ঘটি বিভেদ তুলে পশ্চিমবঙ্গে বসবাসকারীদের ইস্টবেঙ্গলকে সমর্থন করা নিয়ে প্রশ্ন তুলে নতুন বিতর্কের জন্ম দিলেন তথাগত৷

ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের উদেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে মঙ্গলবার টুইট করেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল৷ টুইটারে তিনি লেখেন, পশ্চিমবঙ্গে থেকে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে সমর্থন কেন? এখানে থেকে ইস্টবেঙ্গলকে সমর্থন কী করে করেন আপনারা? স্বভাবতই তাঁর পোস্ট ঘিরে শুরু হয় বিতর্ক৷ পরে অবশ্য ‘ড্যামেজ কন্ট্রোল’ করে আরও একটি টুইট করেন তথাগত৷ তাতে বাংলায় তিনি লেখেন, ‘ভাষার সমস্যা হতেই পারে-বিদেশী ভাষা তো! যদি আমি পাঁচ মিনিটের জন্য ঠান্ডা মাথায় ভাবি, ওয়েস্ট বেঙ্গলে থেকে কেন আমি ইস্টবেঙ্গল সমর্থক, তাহলেই সত্যটা বেরিয়ে আসবে-আমার বাড়ি ছিল পূর্ববাংলায়, সেখানে আমার যাবার অধিকার নেই৷ আমার বক্তব্য, এই কথাটা যেন আমরা বাঙালরা কখনও ভুলে না যাই৷’

মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়ের এই টুইট ঘিরেই বিতর্কের ঝড় উঠেছে কলকাতা ময়দানে। স্বাভাবিকভাবেই এমন টুইটে ক্ষুব্ধ লাল-হলুদ সমর্থকরা। একটি ক্লাবের নাম ইস্টবেঙ্গল বলেই যে পশ্চিমবঙ্গে বসে তাকে সমর্থন করা যায় না, এমন কথার কোনও যুক্তি খুঁজে পাচ্ছেন না তাঁরা৷ কেউই। দেশভাগের এত বছর পরেও কেন এ মন্তব্য? এমন মন্তব্যের জন্য মেঘালয়ের রাজ্যপালের ক্ষমা চাওয়া উচিত বলেও সরব হন লাল-হলুদ সদস্য-সমর্থকরা। বিতর্কিত টুইটই নয়, ক্লাবের নামও ভুল লিখে লাল-হলুদ সমর্থকদের সমালোচনার মুখে প্রাক্তন এই বিজেপি নেতা৷ টুইটের শুরুতে ইস্টবেঙ্গল নামের পাশে অ্যাথলেটিক ক্লাব জুড়লেন তা বোধগম্য হচ্ছে না বাংলার ক্রীড়ামহলের।

এর আগেও রাজ্যপালের চেয়ারে বসে অনেকবার বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন তথাগত৷ সম্প্রতি বাঙালি মেয়েদের বার ডান্সার বলে অপমান করেছিলেন তিনি। তখন টুইটে মেঘালয়ের রাজ্যপাল লিখেছিলেন, ‘‌বাংলার মেয়েরা মুম্বইয়ে গিয়ে বার ডান্সারের কাজ করছে। আর ছেলেরা সাফাইকর্মীর। তাহলে হিন্দিতে কথা বলতে আপত্তি কোথায়!’ এর পর লাল-হলুদ সমর্থকদের নিয়ে মন্তব্য করে নতুন বিতর্কের জন্ম দিলেন তথাগত৷