চেন্নাই: ২ ডিসেম্বরের মধ্যে আরও একটি ঘূর্ণিঝড় দেশের দুই রাজ্যে প্রভাব ফেলবে বলে নিশ্চিত করল ইন্ডিয়ান মেট্রোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট। দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ু ও কেরলের উপকূলে প্রভাব ফেলতে চলেছে এই ঘূর্ণিঝড়। সোমবার এই খবর নিশ্চিত করেছে হাওয়া অফিস।

সর্বশেষ উপগ্রহ পাওয়া চিত্র বলছে, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও এর আশেপাশের নিম্নচাপ অঞ্চল একটি নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। বর্তমানে এই নিম্নচাপটি শ্রীলঙ্কার পূর্ব-দক্ষিণ-পূর্বে প্রায় ৭৫০ কিমি দূরে অবস্থিত। আবার কন্যাকুমারী থেকে ১১৫০ কিমি দূরে অবস্থিত।

আইএমডি একটি অফিসিয়াল বুলেটিনে জানিয়েছে, পরের ২৪ ঘন্টার মধ্যে এটি আরও গভীরতর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে আরও তীব্র হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ক্রমশ ঘূর্ণিঝড় হয়ে ওঠার সম্ভাবনাও রয়েছে।

হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী, ডিসেম্বরের ১ থেকে ২ তারিখের মধ্যেই ভারী বৃষ্টির সম্মুখীন হবে কেরল। ভারী বর্ষার আশঙ্কায় ইন্ডিয়া মেট্রোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট (আইএমডি) ১ ডিসেম্বর পাঠানমথিত্তা ও ইদুক্কি জেলায় অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করেছে। ২ ডিসেম্বর এই অ্যালার্ট থাকছে তিরুঅনন্তপুরম ও কোল্লাম জেলায়।

উল্লেখ্য, মারাত্মক ভারী বৃষ্টির ক্ষেত্রে অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করা হয়। ৬ সেমি থেকে ২০ সেমি বৃষ্টিপাতের ক্ষেত্রে অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করা হয়। তবে ৬ সেমি থেকে ১১ সেমির মধ্যে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকলে সেই এলাকায় ইয়েলো অ্যালার্ট জারি করা হয়।

আইএমডি তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, দক্ষিণ আন্দামান সাগর এবং দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও নিরক্ষীয় ভারত মহাসাগরের সংলগ্ন অঞ্চলগুলিতে একটি নিম্নচাপ অঞ্চল তৈরি হয়েছে। আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে সেটি নিম্নচাপের আকার নিতে পারে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।