কলকাতা : তিনি কলকাতার আবাল বৃদ্ধ বনিতা সকলের প্রেম। আট থেকে আশি সকলেই পছন্দ করেন তাঁকে। তিনি টলিউডের ‘ক্যুইন’ স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। সম্প্রতি, নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে তাঁর পেজে দুটি ছবি শেয়ার করেন স্বস্তিকা।

নিজের চুলে গ্রে হোয়াইট কম্বিনেশন করিয়েছেন স্বস্তিকা। ফেসবুকে “গ্রে ম্যটারস। অ্যান্ড ইয়েস কল মি ওল্ড, ওল্ড ইজ সেক্সি অ্যান্ড আই নো ইট” বলে ক্যাপশন দিয়ে সেই ছবিই শেয়ার করেন তিনি। মাত্র ২০ ঘন্টার মধ্যেই তাঁর ছবিতে লাইক ও রিঅ্যাক্ট পড়ে প্রায় ১৮ হাজার। কমেন্টও ছাড়িয়ে যায় শতকের ঘর এবং শেয়ার হয় প্রায় ৫০০-এর কাছাকাছি।

নায়িকার এই ছবি দেখে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েন তাঁর ভক্তরা। বহু মানুষ তাঁকে অভিনন্দন জানান। কিন্তু এর মধ্যেই ঢুকে পড়েন রাম বণিক নামে এক ব্যক্তি। সরাসরি স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়কে ‘যৌনকর্মী’ বলে উল্লেখ করেন তিনি। তিনি বলেন স্বস্তিকাকে দেখতে যৌনকর্মী লাগছে। এরপরেই প্রচণ্ড ক্ষোভ প্রকাশ করেন স্বস্তিকার ভক্তরা। কমেন্ট বক্সে ঢুকে তাঁকে প্রত্ত্যুত্তর দিয়েছেন নায়িকার ভক্তরা। একজন সরাসরি লিখেছেন, “মানসিকতা চিরকাল হাঁটুর নীচেই রয়ে গেল।”

রাম বণিকের করা কমেন্টের প্রত্যুত্তর দিয়েছেন নায়িকা নিজেও। স্বস্তিকা লিখেছেন, “থ্যাঙ্ক ইউ রাম বাবু। ওরা তো খেটে খাওয়া মানুষ, ওদের মতো দেখতে লাগা সম্মানের ব্যাপার! আপনি নিজের চিন্তা ধারাটা ওদের মতো বড় করুন দেখবেন আপনার নিজেকে নিয়ে গর্ব হবে। অল দ্য বেস্ট।”

নায়িকার এই উত্তরে যারপরনাই খুশি হয়েছেন স্বস্তিকা ভক্তরা। তাঁর প্রত্যুত্তরে লাইক ও রিঅ্যাক্ট করেছেন ১৮৩ জন। কিন্তু এর পরেও দমে যাননি রাম বণিক নামে ওই প্রোফাইলের মালিক। তিনি তাঁর কমেন্টের প্রত্যুত্তরে জানান, স্বস্তিকাকে যৌনকর্মী না, বরং নাকি ফাইভ স্টার যৌনকর্মীর মতো লাগছে। রাম বণিক কমেন্টে আরও জানান, স্বস্তিকার নাকি রুচিবোধ খুবই নোংরা এবং নায়িকা সস্তার জনপ্রিয়তার পিছনে ছুটছেন। উত্তরে “বেশ করেছি জেঠু! সেটাই সারাজীবন করব। ” এভাবেই নিজের মত জানান স্বস্তিকা।

এরপরেই তেড়েফুঁড়ে রাম বণিক নামে ওই প্রোফাইলটির বিরুদ্ধে আক্রমণে নামেন নায়িকার ভক্তরা। সকলেই জানান ওই প্রোফাইলটি ফেক। কারণ প্রোফাইলে কোনও সঠিক ছবি নেই। প্রায় ৫০ টি কমেন্টে ওই প্রোফাইলটির রুচি নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়। কিন্তু তারপরেও বন্ধ হয়নি ওই ফেক প্রোফাইল থেকে মন্তব্য। বারেবারে অশালীন আক্রমণ করা হয় অন্য মহিলাদেরও।