নয়াদিল্লি: ভারতীয় বায়ুসেনা আধিকারিক অভিনন্দন ভার্তামান পাকিস্তানে বন্দি হওয়ার অসংবেদনশীল টুইট করেন পাক অভিনেত্রী বীনা মালিক। আর সেই ট্যুইটেরই কড়া নিন্দা করলেন ভারতীয় অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর।

পুলওয়ামার হামলার কড়া প্রতিশোধ নিয়েছে ভারত। মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে গুঁড়িয়ে দিয়েছে বালাকোটের জইশ জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবির। যে শিবিরে প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন কমপক্ষে ৪২ জন আত্মঘাতী জঙ্গি। নিয়ন্ত্রন রেখা পেরিয়ে মঙ্গলবার সকালে একটা নিখুঁত অভিযান কার্যত চুপ করিয়ে দিয়েছে পাকিস্তানকে।

এই জঙ্গিদের মধ্যে বেশির ভাগ জঙ্গিই ভারতে হামলার ছক করছিল। বালাকোটে মারকাজ সৈয়দ আহমেদ শহিদ প্রশিক্ষণ শিবিরটির মাথা ছিল জইশ প্রধান মৌলানা মাসুদ আজাহারের শ্যালক মহম্মদ সালিম আলিয়াস ঘাউরি। আজাহার ও অন্যান্য জঙ্গি নেতারা এই শিবিরে নতুন জঙ্গিদের চাঙ্গা করতে উৎসাহমূলক বক্তৃতাও দিতে আসত। সেখানেই অভিযান চালায় ভারতীয় সেনা।

পরের দিন ভারতে প্রবেশ করার চেষ্টা করে পাক যুদ্ধবিমান। এরপর সেই বিমানকে তাড়া করতে গিয়ে পাকিস্তানে আটক হন ভারতীয় পাইলট।

যখন সারা দেশ অভিনন্দনের ফিরে আসার জন্য প্রার্থনা করছে তখন, পাক অভিনেত্রী বীনা মালিক একটি খুবই অসংবেদনশীল ট্যুইট করেন। বায়ু সেনা আধিকারিকের ছবি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ” অভি অভি তু আয়ে হো …আচ্ছি মেহেমান নাওয়াজি হোগি আপকি।”

এই ট্যুইটের কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ভারতীয় অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর ট্যুইটে বলেন, “বীনা জি……… শেম অন ইউ অ্যানড ইয়োর সিক মাইন্ডসেট। ইয়োর গ্লি ইস জাস্ট গ্রস।’ তিনি লেখেন, ধরা পড়ার পরও আমাদের অফিসার সাহস দেখিয়েছেন, অন্তত কিছুটা ভদ্রতা দেখানো উচিৎ।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।