তমলুকঃ সিপিএমের আমলে অন্যায় করলে কাউকে তোমরা শাস্তি দিয়েছো? কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের কেউ অন্যায় করলে কিংবা অপরাধ করলে কাউকে ছাড়া হয় না। আমরা কোন অপরাধকে সমর্থন করিনি। এমনটাই মন্তব্য করলেন রাজ্যের পরিবহন, সেচ এবং জল সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

পূর্ব মেদিনীপুর জেলার শহীদ মাতঙ্গিনী পঞ্চায়েত সমিতির, অন্তর্গত মেচেদা নবীন সংঘের মাঠে আজ শুক্রবার এনআরসি,সিএএ এবং এনপিআরের বিরুদ্ধে জনসভার আয়োজন করে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই জনসভায় উপস্থিত ছিলেন নন্দীগ্রামে বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী,তমলুকের সাংসদ দিব্যেন্দু অধিকারি, ময়নার বিধায়ক ডঃ সংগ্রাম দোলোই, জেলা সভাধিপতি দেবব্রত দাস সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা। সেখানেই উপস্থিত হয়ে সিপিএমকে একহাত নেন।

তিনি বলেন, সিপিএমের আমলে অন্যায় করলে কাউকে তোমরা শাস্তি দিয়েছো? কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের কেউ অন্যায় করলে হয় অপরাধ করলে কাউকে ছাড়া হয় না বলে মন্তব্য তাঁর। শুভেন্দু অধিকারীর মতে, তৃণমূল কংগ্রেস এমন একটা দল যারা কোন অপরাধকে সমর্থন করেনা। এখনকার ব্লক সভাপতি নিজেই আত্মসমর্পণ করে গ্রেফতার হয়েছে। এটাই বিরোধীদের সঙ্গে আমাদের তফাৎ।

প্রসঙ্গত বেশ কয়েকদিন আগে কোলাঘাট থার্মাল পাওয়ার প্রজেক্টর ভেতর আধিকারিকদের মারধরের অভিযোগ ওঠে শহীদ মাতঙ্গিনী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দিবাকর জানার ওপর। এরপর দিবাকরবাবু আত্মসমর্পণ করেন। ১৪ দিনের জেল হেফাজত হয় দিবাকর জানার। ওই সভা থেকেই শুভেন্দু অধিকারীর মন্তব্য, আমি মানুষের সঙ্গে থাকি, মানুষের সঙ্গে হাটি। আমি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যাই, আমি রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যাই, আমার সঙ্গে হাঁটছে কেউ ছবি তুলে নিতে পারে সেই ছবি কেউ ছড়িয়ে তৃণমূল কংগ্রেসকে কালিমালিপ্ত করতে পারে না।

প্রসঙ্গত হলদিয়া মা ও মেয়েকে জ্যান্ত পুড়িয়ে মারার ঘটনায় মূল অভিযুক্তের সঙ্গে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। সেই ছবি ঘটনা এদিন তুলে ধরে এমনটাই মন্তব্য করেন মন্ত্রী। এদিন কয়েক হাজার কর্মী সমর্থকদের জমায়েত হয়। কিন্তু আজকে কর্মসূচি মঞ্চের ধারে কাছে দেখতে পাওয়া যায় না তৃণমূলের বহিস্কৃত শহিদ মাতঙ্গিনী পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি দিবাকর জানা এবং শান্তিপুর ১ নম্বর অঞ্চলের প্রধান সেলিম মালিককে। তিনি আরও বলেন, সাধারন যা চায় না, তা আমি কোনও দিন মেনে নেবো না। তাই বলছি আপনারা ঐকবদ্ধ হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হাত শক্ত করতে তৃণমূলের সাথে থাকুন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোলাঘাট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের উন্নয়নের জন্য অর্থ বরাদ্দ করেছে সেই অর্থ দিয়ে উন্নয়নের কাজ শুরু হয়েছে।