কাঁথি: যাঁরা ভোট চান না তাঁরা কোর্ট নিয়ে ব্যস্ত আছেন। ভোট ময়দানে নামতে প্রয়োজন জনবল আর সমর্থন। বাংলার বিরোধীদের সেই ক্ষমতা নেই। তাই উন্নয়নকে স্তব্ধ করে তৃণমূলের ভাবমূর্তি নষ্ট করার গভীর ষড়যন্ত্র চলছে। কিন্তু এতে মানুষের ক্ষতি হচ্ছে। আর যারা মানুষের ক্ষতি করে তারা হাজারও কৌশল করে কোনও লড়াই-ই জিততে পারে না। বিগত সমস্ত ভোটও কম ষড়যন্ত হয়নি। কিন্তু প্রতিটা নির্বাচনে আমরা জিতেছি উন্নয়নের নিরিখে। এবারও তার ব্যতিক্রম হবে না।” এমনটাই মন্তব্য করলেন শুভেন্দু অধিকারী।

শুক্রবার বিকেলে কাঁথি দেশপ্রাণ ব্লকের মুকুন্দপুরে ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের প্রার্থীদের সমর্থনে এই সভার আয়োজন করেছিল দেশপ্রাণ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস পক্ষ থেকে।দ লীয় প্রার্থীদের সমর্থনে সভা করে কাঁথিতে ত্রিস্তর পঞ্চায়েত ভোটের প্রচার করেন পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। এদিনের সভায় মন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি সাংসদ শিশির অধিকারী, উত্তর কাঁথির বিধায়ক বনশ্রী মাইতি এবং ব্লক তৃণমূলের সভাপিত তরুণ জানা সহ অন্যান্যরা।

মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী তাঁর বক্তব্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে তৈরি হওয়া অস্থিরতা প্রসঙ্গে বলেন, পরিবর্তনের সরকারের আমলে গ্রামবাংলার উন্নয়নে রাজ্য সরকারের যাবতীয় কাজের সাফল্য এবং খতিয়ান এদিন ফের মানুষের সামনে তুলে ধরেন শুভেন্দু অধিকারী। ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পে পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে দেশপ্রাণ বীরেন্দ্রনাথ শাসমল নামাঙ্কিত কাঁথির এই ব্লক। সুলভ শৌচালয়, পানীয় জল, বিদ্যুতায়ন সবেতেই রয়েছে সাফল্যের ছাপ।

এদিন একে একে সেই সব সাফল্যের কথা তুলে ধরেন মন্ত্রী। আর এই সাফল্যকে আরও গতিশীল ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের প্রার্থীদের ভোট জেতানোর আহ্বান জানান মন্ত্রী। তিনি আরো বলেন উন্নয়নের নিরিখে শুধু পূর্ব মেদিনীপুর নয় বাংলার প্রতিটি জেলা মা মাটি মানুষের দখলে আসতে চলেছে। উন্নয়নের সাথে মানুষ থাকে। তাই আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস বিরোধীদের ধুয়ে মুছে সাফ করে বাংলায় উন্নয়নের কাজের দায়িত্ব নেবে তৃণমূল সরকার।।