প্রতীকী ছবি

কোচবিহার: গোরু চোর সন্দেহে এক মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে পিটিয়ে খুনের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল ঘোকসাডাঙ্গা থানার নিশিগঞ্জের ভোগমারা এলাকায়। মঙ্গলবার সকালে ঘোকসাডাঙ্গা থানার পুলিশ মৃত দেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে?

পুলিশ সূত্রে খবর, মাঝে মধ্যেই ভোগমারা এলাকায় চুরি হচ্ছিল বলে স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ তোলেন। সোমবার রাতে অপরিচিত এক ব্যক্তিকে এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে দেখে সন্দেহ হয়। এরপর গ্রামের বাসিন্দারা তাঁকে ঘিরে ধরে মারধর শুরু করে। গ্রামবাসীদের মারে ঘটনা স্থলেই মৃত্যু হয় কৈলাস বর্মণ নামে ৫০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির। কৈলাস বর্মনের বাড়ি এই এলাকা থেকে অনেকটা দূরে ঘোকসাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়তের হরিমন্দির এলাকায়। কৈলাস বর্মনের বাড়ির লোকের অভিযোগ মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন তিনি৷ দীর্ঘ দিন থেকে তাঁর চিকিৎসাও চলছিল। মাঝেমধ্যেই সেই বাড়ির বাইরে বেড়িয়ে যেত, বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনের বাড়ি ঘুরে সে আবার নিজের বাড়িতেই ফিরে আসত। গত রবিবার সে বাড়ি থেকে বেড়িয়ে গিয়েছিল।

নিশিগঞ্জ ২ গ্রাম পঞ্চায়তের প্রধান খগেন বর্মণ বলেন, “আজ সকালে গ্রাম ভোগমারা গ্রামে একটি মৃত দেহ পড়ে আছে বলে খবর পাই৷ এরপর পুলিশকে খবর দেই। শুনেছি গোরু চোর সন্দেহ করে তাঁকে পিটিয়ে মারা হয়েছে৷” এই দিকে এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।