কলকাতা: তৃণমূলের প্রতিহিংসামূলক এবং সিপিএম বিরোধী ষড়যন্ত্রের জন্যই দু’দফায় ১১দিন সিআইডি হেফাজত এবং দফায় দফায় ১৬৭ দিন জেল হেফাজতের থাকতে হয়েছিল বলে মনে করেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী সুশান্ত ঘোষ। তবে ২০১২ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্ট জামিন মঞ্জুর করেছিল কিন্তু সেখানেও শর্ত রাখা হয়েছিল তিনি তার বিধানসভায় এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ঢুকতে পারবেন না। অবশেষে সেই শর্ত প্রত্যাহার করে সুপ্রিম কোর্ট। আর সেই জেল জীবনের অভিজ্ঞতা কথা নিয়ে সুশান্ত ঘোষ বই লিখেছেন ‘কারাবাসের দিনগুলি’ ।

বুধবার এই বইটির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ হয় মহাবোধি সোসাইটি হলে। এ দিনের বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন সিপিএম পলিটব্যুরোর সদস্য মহম্মদ সেলিম, সাংসদ বিকাশ ভট্টাচার্য, আইনজীবী অরুণাভ ঘোষ এবং বিশিষ্ট লেখক আজিজুল হক প্রমুখ।

এদিনের অনুষ্ঠানে এসে‌ মহম্মদ সেলিম জানিয়েছেন, সব থেকে ভালো সাহিত্য এবং ডায়েরি লেখা যায় জেলে বসেই। এমন অনেক উদাহরণ রয়েছে। তাঁর মতে, এই বইটিতে জেল জীবনের অভিজ্ঞতা এবং অন্য বিচারাধীন বন্দীর পরিস্থিতি মানবিক দৃষ্টিতে এবং রাজনৈতিক মতাদর্শের ভিত্তিতে দেখে সুশান্ত ঘোষ তুলে ধরেছেন। এই বইটিতে শাসকের বিরুদ্ধে তার লড়াই এর ছবি প্রতিফলিত হয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

অন্যদিকে বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে গিয়ে সাংসদ বিকাশ ভট্টাচার্য অভিমত প্রকাশ করেছেন, বামফ্রন্টের পতন একটা ষড়যন্ত্রের ফসল আর সেই ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিলেন খোদ সুশান্ত ঘোষ। যদিও ওই অবস্থায় এই মানুষটি আত্মসমর্পণ না করে লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন। পাঠকেরা বইটিতে জেল জীবনের অভিজ্ঞতা পাবেন। তাছাড়া এদিনের অনুষ্ঠানে সুশান্ত ঘোষের পাশাপাশি বক্তব্য রাখেন অরুণাভ ঘোষ আজিজুল হক। নাট্যকার চন্দন সেন সহ আরও বেশ কিছু বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।