মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু রহস্যে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসছে। এবার অভিযোগ কালা যাদু করতেন রিয়া। ইতিমধ্যেই সুশান্তের বাবা কেকে সিং অভিওগে জানিয়েছেন যে সুশান্তকে একেবারে নিজের নিয়ন্ত্রনে এনে ফেলেছিলেন রিয়া চক্রবর্তী। রিয়া নিজেই জানিয়েছেন যে তিনি সুশান্তের সঙ্গে লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন।

সুশান্তের কেরিয়ার ধ্বংস করা থেকে, তাঁর টাকা আত্মস্যাৎ করা, তাঁকে পরিবারের কাছ থেকে দূরে সরিয়ে দেওয়া, সুশান্তের সমস্ত বিষয়ে নজরদারি, তাঁকে কড়া ডোজের ওষুধ খাওয়ানো, মানসিক অবসাদগ্রস্থ প্রতিপন্ন করা, হুমকি দেওয়ার মতো একাধিক অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে।

বেশ কয়েক মাস আগে সুশান্তের দিদি মিতু রাজপুতকে নাকি এমনই জানিয়েছিলেন প্রয়াত অভিনেতার বাড়ির পরিচারক। জিজ্ঞাসাবাদের সময় পটনা পুলিশকে এমনটাই জানিয়েছেন সুশান্তের দিদি মিতু।

পরিচারক রাম জানিয়েছেন, রিয়া সুশান্তের জীবনে আসার আগে সুশান্ত আনন্দে ছিলেন। কিন্তু রিয়া তাঁকে ওষুধ দিতেন। এরপর থেকেই নাকি সুশান্তের মন খারাপ থাকত। রিয়া ব্ল্যাক ম্যাজিক করত বলেও জানিয়েছেন ওই পরিচারক।

রিয়ার আইনজীবী সতীশ মনশিন্দে কয়েকদিন আগে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন। ভিডিও-র মাধ্যমে রিয়া দাবি করেন সমস্ত সত্যি সামনে আসবে। এবং তিনি আইন ও ঈশ্বরের উপর বিশ্বাস রাখেন। সাদা রঙের সালোয়ার কামিজ পরে ক্যামেরার সামনে নিজের বয়ান রাখেন তিনি।

কাঁদো কাঁদো মুখে বলেন, “ঈশ্বর ও আইনের উপর আমার অগাধ বিশ্বাস রয়েছে। আমি বিশ্বাস করি আমি সুবিচার পাব। ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় আমার বিষয়ে সাংঘাতিক কিছু কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু আমি আমার আইনজীবীর পরামর্শ মেনে এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করব না। “

ভিডিওর শেষে হাতজোড় করে রিয়া বলেন, “সত্য নিশ্চয়ই সামনে আসবে। সত্যমেব জয়তে।” এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর নতুন করে বিতর্ক তৈরি হয়। কিভাবে এখনো রিয়াকে গ্রেফতার করা গেল না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। মুম্বই পুলিশ কেন এখনো রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল না, এবং কিভাবে এখনো পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে কোনো এক অজানা জায়গা থেকে ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়ছেন তিনি তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন নেটিজেনরা।

রিয়ার ভিডিও প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গে নেটিজেনরা তীব্র নিন্দা করেন। অনেকেই দাবি করেন, “নিজেকে বাঁচানোর জন্য সম্পূর্ণ নাটক করছেন তিনি”। রাজিব নগর থানায় সুশান্তের বাবা রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর করার পরেই রিয়া আবেদন করেন, বিহার নয়। মুম্বইতেই সুশান্ত মামলার তদন্ত হোক। রিয়ার আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টে পর্যন্ত স্থগিতাদেশ চেয়ে আবেদন করেন।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও