স্টাফ রিপোর্টার, কৃষ্ণনগর: রাজীব কুমারের কাছে কাছে কিছু কাগজপত্র আছে, যেটা ধরা পড়লে তিনি এবং তাঁর ভাইপো বিপদে পড়বে । তাই তো এত ছোটাছুটি করছেন ৷ সেটা বোঝা যাচ্ছে না ? মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এভাবেই কটাক্ষ করলেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র৷

শনিবার সিপিআইএম নেতা বাবুল বিশ্বাস খুনের প্রতিবাদ সহ একাধিক দাবি-দাওয়া নিয়ে সিপিআইএম নদিয়া জেলা কমিটির ডাকে একটি প্রকাশ্য জনসভার আয়োজন করা হয়। যেখানে উপস্থিত ছিলেন সিপিআইএম নেতা সূর্যকান্ত মিশ্র।তার দীর্ঘ এক ঘণ্টার বক্তব্যে রাজীব কুমার প্রসঙ্গ থেকে শুরু করে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় এবং এনআরসি নিয়েও নরেন্দ্র মোদী সরকার এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকেও একযোগে আক্রমণ করেন।

এ দিন রাজীব কুমারকে ‘হরিদাস পাল’ বলেও কটাক্ষ করেন সিপিএম নেতা। সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন, ‘কে ওই হরিদাস পাল? ওর যে মালিক আছেন,যেখান থেকে ও পয়সা পায়, তার নিজের মাথা সামলাক। ওর কাছে শুধুমাত্র কিছু কাগজপত্র রয়েছে, যেটা ধরা পড়লে দিদি এবং ভাইপো, দু’ জনেই বিপদে পড়বে। তার জন্যই তো ছুটোছুটি করছে। এটা বোকা ছাড়া আর সবাই বুঝতে পারছে।’

উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহে দিল্লিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ওই সাক্ষাত নিয়েই যে সিপিএম রাজ্য সম্পাদক ইঙ্গিত করেছেন, তা স্পষ্ট। তবে মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লি সফরের পরও রাজীব কুমারকে ধরতে সিবিআই তৎপরতা কমেনি, বরং বেড়েছে।

এদিন, সাংবাদিকদের প্রশ্নে বাবুলাল বিশ্বাস খুনি গ্রেফতার প্রসঙ্গে সূর্যকান্ত বলেন, এই দুজন গ্রেফতার হতো না যদি আমরা না থাকতাম। এরা কেউ ছেড়ে পালাতে পারবে না একদিন না একদিন আসতেই হবে।

এনআরসি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা আছি, অসময় যারা প্রতারিত হয়েছে আমরা তাদের সঙ্গেও আছি, সারা ভারতে আমরা সবার সঙ্গেই থাকব।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও