লখনউ: উত্তর প্রদেশের সীতাপুর জেলায় গত কয়েকদিনে কুকুরের কামড়ে অন্তত ১৪ শিশুর মৃত্যু হয়েছে৷ পরিস্থিতি রীতিমতো সঙ্গীন৷ এমন ঘটনায় বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন যোগী সরকারের মন্ত্রী সুরেশ খান্না৷ তিনি বলেছেন, এতে প্রশাসনের কিছুই করার নেই৷ যদিও মুখ্যমন্ত্রী বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত৷

সুরেশ খান্না রাজ্যের নগরোন্নয়ন মন্ত্রী৷ তাঁর দফতরের হাতেই রয়েছে নাগরিক পরিষেবার ভার৷ এদিকে কুকুরের কামড়ে সীতাপুরবাসী সন্ত্রস্ত৷ একের পর শিশুর মৃত্যুর পরেও মন্ত্রীর মনোভাবে ক্ষোভ ছড়িয়েছে৷ একটি সরকারি অনুষ্ঠানে বারাণসী এসেছিলেন মন্ত্রী সুরেশ খান্না৷ সেখানেই সাংবাদিকরা সীতাপুরে কুকুরের কামড়ে ১৪ শিশুর মৃত্যুর প্রসঙ্গ তুলতেই ক্ষুব্ধ হন মন্ত্রী৷ এরপরেই জানিয়ে দেন, কুকুরে কামড়ে দিয়েছে তো কী হয়েছে, এতে প্রশাসনের কিছুই করার নেই৷

সীতাপুর জেলায় সম্প্রতি বেওয়ারিশ কুকুরের দাপটে জনসাধারণ অতিষ্ঠ৷ যখন তখন কুকুরের দল তেড়ে গিয়ে কামড়ে দিচ্ছে৷ শিশুদের নিরাপত্তা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷ অভিযোগ, কুকুরের কামড়ে পরপর শিশু মৃত্যু হলেও হাত গুটিয়ে বসে আছে স্থানীয় নগর উন্নয়ন বিভাগ৷ ঘটনায় চিন্তিত মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ তাঁর নির্দেশে সরকারি আধিকারিকরা মৃতদের আত্মীয় ও আহতদের সঙ্গে দেখা করেছেন৷ সরকারের তরফে বিশেষ সেল গঠন করা হলেও কুকুর বাহিনীর হামলা লেগেই আছে৷

রাজ্যের অন্যান্য পুরনিগমে ছড়িয়েছে আতঙ্ক৷ রাজধানী লখনউয়ের রাস্তায় বেওয়ারিশ কুকুর দেখলেই অনেকে ভয় পাচ্ছেন৷ তারই মাঝে নগরোন্নয়ন মন্ত্রীর বয়ান বিতর্ক তুলে দিল৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ